পাতা:শিখ-ইতিহাস.djvu/২২৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


〉b R শিখ-ইতিহাস পঞ্জাবের পশ্চিমদিকববর্তী দুইটি নদীর মধ্যবর্তী স্বধৃঢ় মানকের দুর্গ, বহুদিন হইতে সেই স্বনামধন্য শাসনকর্তার পিতা হাফিজ আমেদ খাঁ রক্ষা করিয়াছিলেন। তিনি কঙ্কাচ কাবুলের বগুতা স্বীকার করেন নাই । কিন্তু সম্মান-স্বচক কতকগুলি সর্তের অঙ্গীকারে প্রলোভিত হইয়া, বৎসরের শেষ ভাগে তিনি দুর্গ সমর্পণ করিলেন । সিন্ধুনদের দক্ষিণতীরস্থ সমগ্র দেশ এবং তদন্তৰ্গত ডেরা-ইন্মাইল-খ। তাহার অধীনে রহিল ; কিন্তু লাহোরের জায়গীরদার স্বরূপ তিনি উহা ভোগ-দখল করিতে থাকিলেন ॥৩৫ ফতে খণর মৃত্যুর পর, তাহার ভ্রাতা মহম্মদ আজম ভ্রাতার সম্পূর্ণ ক্ষমতা প্রাপ্ত হইলেন। সিন্ধুনদের পশ্চিম তীরে, রণজিৎ সিংহের ক্ষমতা সীমাবদ্ধ-করণ মানসে, তিনি ১৮২২ খৃষ্টাব্দে পেশোয়ার অভিমুখে যাত্রা করিলেন। আটকের সম্মুখবর্তী খাইরাবাদ আক্রমণ করাই তাহার প্রথম উদ্দেশ্য । আপ্রয়বিহীন শিখ-শাসন-কর্তা জয় সিং তাহার সঙ্গে রহিলেন । কিন্তু অন্যান্য কারণ বশতঃ, তিনি শীঘ্রই প্রত্যাবর্তন করিতে বাধ হইলেন । র্তাহার কার্য-প্রণালী পরিদর্শন করিয়া, মহারাজ পশ্চিমাভিমুখে আসিলেন ; তিনি তথা হইতে পেশোয়ারের শাসনকর্তা ইয়ার-মামুদ খাঁর নিকট দূত প্রেরণ করিয়া রাজস্ব দাবী করিলেন।৩৬ সেই শাসনকর্তা, রণজিৎ সিংহকে যেরূপ ভয় করিতেন, ভ্রাতা মহম্মদ আজম খাঁর ষড়যন্ত্রেও তদ্রুপ ভীত হইয়াছিলেন ; স্বতরাং তিনি বহুমূল্য অশ্ব প্রদানের প্রস্তাব করিলেন। মহারাজ তাহাতেই সন্তুষ্ট হইয়া সে স্থান হইতে কৌশলে প্রত্যাবৃত হইলেন । এই সময়ে শতদ্রুর দক্ষিণ-তীরবর্তী ওহাঁদনি নামক স্থানের অধিকার-স্বত্ব লইয়া ইংরাজদের সহিত বিবাদ উপস্থিত হয় । ১৮০৮ খ্ৰীষ্টাব্দে রণজিৎ সিং, সেই স্থান যড়যন্ত্রকারিণী এবং উচ্চাভিলাষিনী শ্বশ্ৰ সদা কোঁড়কে প্রদান করেন । ইংরাজ প্রতিনিধিগণ মনে করিতেন,—সেই রমণী, শতদ্রুর দক্ষিণতীরবর্তী কাণিয়া ( বা ঘাণি) সম্প্রদায়ভুক্ত শিখজাতির স্বার্থ-সাধনোদেশে প্রতিনিধি নিযুক্ত হইয়াছেন ; স্বতরাং তিনি ইংরাজদিগের আশ্রয়লাভের স্বত্বাধিকারিণী। কিন্তু রণজিৎ সিং শ্বশ্রীর সহিত বিবাদ করিয়া তাহাকে কারারুদ্ধ করেন, এবং ওহাদনি দুগ* অধিকার করিয়া লন। এক্ষণে বলপ্রয়োগে মহারাজের উচ্ছেদ-সাধন করিতে হইবে,— ইহাই স্থিরীকৃত হইল। লুধিয়ান হইতে একদল সৈন্য গমন করিয়া কারারুদ্ধ বিধবা রমণীকে পুনরায় তাহার স্বত্বাধিকার প্রদান করিল । রণজিৎ সিং সে ক্ষেত্রে ইংরাজরাজপ্রতিনিধির কার্যকলাপের কোনই প্রতিবাদ না করিয়া, বিশেষ বিজ্ঞতার পরিচয় ৩৯ মারে বিরচিত রণজিৎ সিং, ১২৯ এবং ১৩• পৃষ্ঠা এবং সার এ. বারনেস কৃত 'কাবুলের పాషా পৃষ্ঠা। (Compare Murray’s “Runjeet Singh' p. 129, 130 and Sir A, Burne's. *Caubul* p. 92.) ৩৬। মারে বিরচিত রণজিৎ সিং, ১৩৫—১৩৭ જૂઠ્ઠા ( Compare Murray's "Runjeet. Singh’ p. 134—137, )