পাতা:শিখ-ইতিহাস.djvu/২৬৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শিখ-ইতিহাস "ל צא ইংরাজদিগের আশ্রয় গ্রহণ করিয়া শতদ্রুর পূর্ব তীরে রাজ্যশাসন করিতে লাগিলেন ; অন্যদিকে লেফটনাণ্ট বারনেস তখন সিন্ধু নদের উত্তরবর্তী প্রদেশে আগমন করিতেছিলেন। মহারাজ চিরকালই সন্দিগ্ধচিত্ত ছিলেন : তিনি স্থির করিলেন,—উক্ত কর্মচারীর মস্তব্যের রাজনৈতিক কোন গুঢ় উদ্দেশ্বের উল্লেখ করিয়া, ব্রিটিশ গবর্ণমেণ্ট তাঁহাই সমর্থন করিবেন ॥৩৪ এই সমস্ত কারণে সিন্ধু নদের প্রধান শাখা পরিত্যাগ করিয়া, প্রতিনিধি সকলই পরিবর্তনশীল দেখিতে পাইলেন। রূপারে তাহার সহিত সাক্ষাতের পূর্বেই জেনারেল ভেণ্টা, ভাওয়াল থাকে সিংহাসনচ্যুত করিলেন ;-শতদ্রুর দক্ষিণ-তীরস্থিত তাহার পৈতৃক রাজ্য এবং লাহোরের জায়গীর প্রভৃতির অধিকার হইতে তিনি বঞ্চিত হইলেন ৩৫ অধিকন্তু শিকারপুর, ‘কালহোর’ বা ‘তালপুর সম্প্রদায়ের অধিকৃত সিন্ধু রাজ্যের অংশভুক্ত বলিয়া গণ্য হইল না। আইউবের উজীর মহম্মদ আজম খাঁর মৃত্যুর পর ‘তালপুরগণ ঐ স্থান বলপূর্বক অধিকার করিয়াছিল ; সেই সময় হইতেই খয়েরপুর, মীরপুর এবং হায়দ্রাবাদ প্রভৃতি স্থানের রাজপরিবারবর্গ একত্রে ঐ স্থান অনায়াসলব্ধ মনে করিয়া ভোগদখল করিয়া আসিতেছিলন । রণজিৎ সিংহের মনে হইল,—সিন্ধুতীরস্থ বারুকজায়ীদিগের তিনিই একমাত্র অধীশ্বর। স্বতরাং সিন্ধু-দেশের দক্ষিণ-পূর্ব প্রদেশস্থ আমীরগণের স্বত্ব অপেক্ষা, ঐ প্রদেশে তাহার স্বত্বই প্রবল। সুতরাং তৎপ্রদেশসমূহ নিজ রাজ্যের অন্তভূক্ত করিয়া লইতে মহারাজ যত্বপর হইলেন।৩৬ যখন কাপ্তেন ওয়েড, ইংরাজ বণিকগণের সুবিধার জন্য শতদ্রুতে বাণিজ্যপোত পরিচালনার অনুমতি প্রার্থনা করেন, তখন রণজিৎ সিংহের মানসিক গতি এইরূপ ছিল । মহারাজ স্বীকার করিলেন বটে, তিনি অত্যন্ত আনন্দিত হইয়াছেন ; কিন্তু তখনই তাহার মনে উদয় হইল,—ইংরাজগণ সিন্ধুদেশের মধ্য দিয়া বলপূর্বক গমনাগমনের পথ প্রশস্ত করিতে উদ্যোগী হইয়াছেন । কর্ণেল পাটজারের সহিত কয়দল সৈন্য প্রস্তুত রহিয়াছে— তাহা তিনি জিজ্ঞাসা করিলেন । এবং অনতিবিলম্বে আমীরদিগের ধ্বংস সাধনের জন্য বারংবার ইচ্ছা প্রকাশ করিতে লাগিলেন ৩৭ অতঃপর আরও প্রমাণিত হইল,—যখন পটিজার ইংরাজদিগের পক্ষ হইতে অপরাপর সামস্তগণের সহিত বন্ধুত্ববন্ধনে আবদ্ধ হইতে ছিলেন, লাহোর রাজ্যের বন্ধু সংগ্ৰহাৰ্থ এবং ‘তালপুর" সম্প্রদায়ের মধ্যে বিবাদ সংঘটনোচ্ছেপ্তেই যেন মহারাজ, মীরপুরের মীর-আলি-মোরাদকে তখন ডের গাজী-খাঁ ইজার দিবার প্রস্তাব উত্থাপন করিয়াছিলেন।৩৮ কিন্তু তিনি দেখিলেন, গবর্ণর-জেনেরল ৩৪। মহারাজ এতদুদেণ্ঠে কার্য করিয়াছিলেন, কাপ্তেন ওয়েডের অতঃপর তাঁহাই বোধ হইয়াছিল। গবর্ণমেণ্টের নিকট ১৮৩৬ খৃষ্টাব্দের ১৮ই অক্টোবর, তাহার লিখিত পত্র দ্রষ্টব্য। se l Capt. Wade to Government, 5th Nov. 1831, ৩৬A রণজিৎ সিং সর্বদাই এইরূপ যুক্তি প্রদর্শন করিয়া থাকেন। Capt. Wade to Govt. 15th Jan. 1837. on 1 Capt. Wade to Government, 1st and 13th Feb. 1832. ow l Captain Wade to Government, 21st Dec, 1831, and Col. Pottinger to Government, 23rd Sept. 1837.