পাতা:শিখ-ইতিহাস.djvu/৩০৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ՀՓԵ. শিখ ইতিহাস সেনাপতি অন্ত উপায়ে গৃহবিচ্ছেদের বিষয় কিছুই জানিতে পারিলেন না ; কেবল সংবাদলেখকদিগের প্রচারে এবং লোকমুখে সেই সমুদায় তাহার নিকট ব্যক্ত হইল।২০ বস্তুতঃ লাহোরের সিংহাসনে কে উত্তরাধিকারী হইবে তৎসম্বন্ধে বৃটিশ গবর্ণমেণ্ট কোনই ঘোষণা প্রচার করিলেন না । কিন্তু সকলেরই বিশ্বাগ হইল যে, শের সিংহই রাজ্যের প্রকৃত অধিকারী বলিয়া স্বীকৃত হইয়াছেন। তখন মায়ি চাদ কৌরের মন্ত্রিগণ বুঝিতে পারিলেন, রাজা ধীয়ান সিংহের আশ্রয় গ্রহণ না করিলে, যুবরাজ অপ্রকৃত সত্বাধিকারে, এবং ইংরেজদিগের প্রভুত্ব-ক্ষমতায় বাধা প্রদান করা অসম্ভব । ধীয়ান সিং কোন সময়ে মহারাণীর প্রধান মন্ত্রীত্ব লাভে অনিচ্ছা প্রকাশ করেন নাই । গোলাপ সিং সর্বাপেক্ষা চতুর ও বিচক্ষণ ছিলেন । বিচক্ষণ রমণীর স্বাভাবিক জটিল শাসন প্রণালী, তিনি আপন পরিবারের উন্নতিপক্ষে সুবিধাজনক বহু বিষয় বর্তমান দেখিলেন। বস্ততঃ পক্ষপাতিত্ব দোষে কলুষিত এবং শিখ ধর্মের অল্পবর্তী সাধারণ-জ্ঞান-বিশিষ্ট রাজগণের শাসনে এ সকল দোষ কিছুই বর্তমান থাকিতে পারিত না । কিন্তু মায়ির মন্ত্রীগণ সম্পূর্ণরূপ অপরিচিত অবস্থায় থাকিতে অনিচ্ছা প্রকাশ করিলেন। ধীয়ান সিংহ দূরে থাকিয়া উপযুক্ত সময়ে সাহায্য প্রদান করিতেন বলিয়া, গোপনে শের সিংকে আশ্বাস দিলেন। এ দিকে, যুবরাজ আপন সিংহাসন-প্রাপ্তির সম্বন্ধে ইংরাজ-প্রতিনিধির মতামত জানিতে চাহিলেন। ইংরাজগণ তদ্বিষয়ে উত্তর, প্রদান করিলেন —ইংরজে প্রতিনিধি র্তাহাকে নিশ্চিত জানাইলেন,— যাহারা বত্রিশ বৎসর কাল শিখদিগের সহিত মিত্রত-স্বত্রে আবদ্ধ, তাহারা পঞ্জাবে কেবল দৃঢ়-শাসন-নীতি প্রবর্তন দেখিতে বাসনা করেন ; যুবরাজ এইরূপ উত্তর পাইয়া সন্তুষ্ট হইলেন।২১ মন্ত্রীর সাহায্যে শের সিং কয়েকটি সৈন্ত-বিভাগ হস্তগত করিয়াছিলেন । র্তাহার বিশ্বাস ছিল, যদি তিনি সাহসে নির্ভর করিয়া তাঁহাদের সেনাপতি হইতে পারেন, তাহ হইলে, সমগ্র সৈন্ত বিভাগই র্তাহার পক্ষ সমর্থনে দণ্ডায়মান হইবে । যুবরাজ অথবা তাহার প্রিয় অনুচরগণের ব্যগ্রতায় সকল কার্যই অনতিবিলম্বে সংঘটিত হইল। ১৮৪১ খ্ৰীষ্টাব্দের ১৭ই জানুয়ারী যখন তিনি অকস্মাৎ লাহোর আক্রমণ করিলেন, তিনি দেখিতে পাইলেন ধীয়ান সিং তখনও জামু হইতে আসিয়া পৌছেন নাই ; পরস্তু তাহার অব্যবস্থিত মন্ত্রণায় বিনীতভাবে মন্ত্রীর পক্ষ অবলম্বন করা অপেক্ষ,রাজ্যের সর্ববিদিত অধিষ্ঠাত্রী রাজীর অছুকুলে যুদ্ধ করাই শ্রেষ্ঠ জ্ঞান করিয়া গোলাপ সিং, স্থসজ্জিত হইয়া আছেন। কিন্তু শের সিং আর অধিকক্ষণ প্রভুত্ব শক্তি পরিচালনা করিতে পারিলেন না ; তাহার আর কোন ক্ষমতা রহিল না। নিজেও আর ধৈর্মাবলম্বন করিতে পারিলেন না। সুতরাং স্থতিবিলম্বেষ্ট প্রবল সৈন্যদল দুর্গ ভয় করিতে অগ্রসর হইল। গোলাপ সিং কিছুকাল ২•। দক্ষ এবং স্নচতুর কর্ণেল হুইলার কতৃক প্রত্যাবর্তনকারী সৈন্যদল পরিচালিত হইয়াছিল। আফগান এবং শিখ যুদ্ধ সম্পর্কে তাহার নাম সাধারণের বিশেষ পরিচিত।

    • I See Mr. Clerk's letters to Goverrment of Dec. 1840 and Jan. 1841.

generally that of the 9th Jan. *