পাতা:শিখ-ইতিহাস.djvu/৩২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


-२b*8 শিখ-ইতিহাস বালকের শাসন সময়ে তাহার বশ্যতা স্বীকার করিতে সকলেই কতকটা ইতস্ততঃ করিয়াছিলেন।৭৭ সাধারণের বিশ্বাস, রাজা স্বচেৎ সিং, কাশ্মীরা সিংহের সমস্ত মন্ত্রণায় অপ্রকাশুভাবে তাহাকে সাহায্য করিয়াছেন। জোয়াহির সিংহের মুক্তিলাভও তাঁহারই সন্মতিক্রমে সংঘটিত হইয়াছে। রাজার বিশ্বাস, তিনি সৈন্যগণের মধ্যে সকলেরই প্রিয়পাত্ৰ ; প্রধানতঃ যে অশ্বারোহী সৈন্য কতকটা অশিক্ষিত, এবং যাহারা স্থায়ী ও শিক্ষিত পদাতি ও শস্ত্রচালনাকারী সৈন্যদলের শৃঙ্খলাবদ্ধ কার্য-প্রণালীতে কতক পরিমাণে ঈর্ষাপরতন্ত্র, তাহাঁদেরই তিনি অধিকতর প্রিয়পাত্র । তিনি অতিশয় বিরক্তি ও অনিচ্ছার সহিত পার্বত্য প্রদেশে গমন করিলেন , ভ্রাতুষ্পুত্রকে বঞ্চিত করিয়া সিংহাসন অধিকার করিতে তখনও তাহার উৎকট অভিলাষ ছিল। ১৮৪৪ খৃষ্টাবোর ২৬এ মে অপরাহ্নে কয়েকজন অম্লচর সমভিব্যাহারে তিনি অকস্মাৎ লাহোরে উপনীত হইলেন ; কিন্তু অধিকাংশ সৈন্যদল তাহার বিনীত প্রার্থনা উপেক্ষা করিল। তাহার একটি কারণ এই যে, হীরা সিং দানে মুক্তহস্ত এবং প্রতিজ্ঞায় অটল ও অতিশয় উদারচেতা ছিলেন ; দ্বিতীয় কারণ এই যে, যে সকল স্বচতুর প্রতিনিধি সৈন্যদল সমুহের “পঞ্চায়েৎ" স্বরূপ নিযুক্ত হইতেন— অথবা যাহাঁদের দ্বারা “পঞ্চয়েৎ” সভা গঠিত হইত, তাহারা আপনাপন মহত্ত্ব ও আত্মসন্মান বিশেষরূপ উপলব্ধি করিতে পারিতেন ; একমাত্র অধ্যাবসায়শীল এবং বিজ্ঞজনোচিত অনুসন্ধান না করিয়া, বিদ্রোহের উদ্দেশ্যে সহজে তাহারা কাহারও পক্ষ অবলম্বন করিতেন না। স্বতরাং স্ব-প্রত্যাশী ও অবিমৃশ্যকারী রাজার আগমনের অব্যবহিত পরে, প্রাতঃকালে বৃহৎ এক দল সৈন্য কোনরূপ দ্বিধামত প্রকাশ না করিয়া, রাজার বিরুদ্ধে যাত্ৰা করিল ; কিন্তু রাজা অত্যন্ত সাহসী ও বীরপুরুষ ছিলেন ; তিনি ভগ্ন-প্রাসাদের মধ্যে থাকিয় বাধা দিবার চেষ্টা করিলেন। কিন্তু যদিও তাহার মুষ্টিমেয় সৈন্য বহুসংখ্যক শস্ত্রধারী সৈন্যের অগ্নিবর্ষণে একরূপ নিঃশেষ হইয়াছিল ; কিন্তু আক্রমণকারিগণ দুর্গপ্রাকার মধ্যে প্রবেশ করিবার পূর্বে, তিনি শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত যুদ্ধ করিয়া প্রাণত্যাগ করিলেন ।৭৮ উত্তার সিং সিন্ধানওয়ালী এ যাবৎ থানেশ্বর বাস করিতেছিলেন । এইরূপ অবিমুশ্যকীরিতা ও অসমসাহসিক কার্যের পর, দুই মাসের মধ্যেই সৈন্যগণের সাহায্যে তিনি হীরা সিংহকে বিতাড়িত করিতে চেষ্টা করেন। ২রা মে তারিখে তিনি শতদ্রু নদী অতিক্রম করিলেন ; কিন্তু অসাময়িক সংঘর্ষণ পরিহার-কল্পে এবং শিখদিগের নিকট বিনীত প্রার্থন জানাইয়া, তাহাদিগের সহানুভূতি প্রাপ্ত হইবার জন্য, কোন দূরবর্তী স্থানে "" না করিয়াই, তিনি একেবারে ভাই বীর সিংহের সহিত মিলিত হইলেন । এই ৭৭ ৷ ১৮৪৪ খৃষ্টাব্দের ২৭শে মার্চ লেফটনাণ্ট-কর্ণেল রিচমণ্ডের পত্র। ৭৮ । ১৮ss খৃষ্টাব্দের ২৯এ মার্চ, লেফটনানট-কর্ণেল রিচমও গবর্ণমেন্টের বরাবর যে পত্র লেখেন, छांश शडेवा ।