পাতা:শিখ-ইতিহাস.djvu/৪১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


●ፃፀ শিখ-ইতিহাস চল্লিশ ফিট উচ্চ দুর্ভেদ্য স্বধৃঢ় দুর্গ প্রকার ; সেই দুর্গপ্রাকারের উপরে ত্রিশটি উচ্চচূড়ায় কামানসমূহ স্থসজ্জিত। দুর্গের অভ্যস্তরে দুর্গরক্ষার বিপুল আয়োজন। যদি বহুদিন পর্যন্ত সেই দুর্গ শত্রু হন্তে অবরুদ্ধ থাকে, অনায়াসে তাহার আত্মরক্ষায় সমর্থ হইবেন,–এবম্বিধ যুদ্ধোপকরণ এবং রসদাদি সংগ্ৰহ করিয়া লইয়া, সসৈন্তে মূলরাজ মুলতানের দুর্গমধ্যে অবস্থান করিতে লাগিলেন । মূলরাজ সসৈন্যে মূলতানে গিয়া আশ্রয় গ্রহণ করিলে, মুলতান আক্রমণ সম্বন্ধে নানাবিধ আয়োজন চলিতে লাগিল । ইংরেজ বুঝিলেন, মুলতান অধিকার দুরূহব্যাপার সত্য ; কিন্তু মূলতান অধিকার করিতে না পারিলে, তাহদের সকল গর্বই খর্ব হইবে। অগত্য অনেক পরামর্শের পর, পঞ্জাব সৈন্তের অধিনায়ক জেনারেল হুইশ মুলতান অভিমুখে যাত্রার জন্ত আদিষ্ট হইলেন। অন্যান্য নানা স্থান হইতে মুলতান-অভিযানে সৈন্য-সমাবেশ আরম্ভ হইল। ২৪শে জুলাই জেনারেল হুইশ, ৮৩,৭৯ জন সৈন্য, দুর্গঅবরোধোপযোগী ১২টি কামান এবং অশ্ববাহিত ১২টি কামান লইয়া অগ্রসর হইলেন। র্তাহার সৈন্যদল দুই ভাগে বিভক্ত হইল। একদল লাহোর হইতে যাত্রা করিয়া ইরাবতী নদীর পূর্ব পার্শ্ব দিয়া অগ্রসর হইতে লাগিল ; অপর দল ফিরোজপুর হইতে যাত্রা করিয়া শতদ্রু নদীর পশ্চিম পার দিয়া ব্রাইগেডিয়র সাপ্টারের অধিনায়কত্বে পরিচালিত হইল । ইতিপূর্বে ইংরেজের অধীনস্থ দেশীয় সৈন্যদলের ৮,৪১৫ জন অশ্বারোহী, ১৪,৩২৭ জন পদাতিক, মুলতান অবরোধের জন্য সমবেত হইয়াছিল ; তাহাদের সঙ্গে সঙ্গে অশ্ববাহিত ৪৫টি কামান আসিয়া পৌছিয়াছিল। লেফটেনাণ্ট এডওয়ার্ডস কতৃক ৭,৭১৮ জন পদাতিক এবং ৪,০৩৩ জন অশ্বারোহী-সৈন্য পরিচালিত হইতেছিল ; ভাওয়ালপুর সৈন্যের অন্তর্গত ৫,৭০৩ পদাতিক-সৈন্য এবং ১,১০• অশ্বারোহী সৈন্য লেফটেনাণ্ট লেক পরিচালনা করিতেছিলেন । ১৭১ জন পদাতিক এবং ৩৩৮২ জন অশ্বারোহী শিখ-সৈন্য, রাজা শের সিংহের আজ্ঞাধীনে অবস্থিত ছিল । ফলতঃ ইরাজপক্ষের প্রায় ৩২ সহস্ৰ, সৈন্য, মূলরাজের ১২ সহস্ৰ সৈন্যের বিরুদ্ধে সজ্জিত হইয়াছিল। সেই অল্পসংখ্যক সৈন্য লইয়াও, দুর্গ-প্রাকারের সহায়তায়, মূলরাজ বিপুল বৃটিশ-বাহিনীর সম্মুখে দণ্ডায়মান হইলেন । বৃটিশ-পক্ষের সকল সৈন্য আসিয়া একত্র সমবেত হইলে, ৪ঠা সেপ্টেম্বর জেনারেল হইশ এক ঘোষণাপত্র প্রচার করিলেন। অবরুদ্ধ মূলতানের অধিবাসিগণ আত্মসমর্পণ করুক,—ইহাই সেই ঘোষণাপত্রের উদ্দেশু। তিনি জানাইলেন,— "আগামী কল্য (৫ই সেপ্টেম্বর) হুর্যোদয়ুের পূর্বে রাজকীয় কামান ধ্বনিত হইবে ; সেই কামানের শব্দ শুনিবার ২৪ ঘণ্টা মধ্যে বিনা সর্তে সকলকে আত্ম-সমৰ্পণ করিতে হইবে । গ্রেট ব্রিটেনের মহারুণী এবং তাহার মিত্র মহারাজ দলীপ সিংহের সম্মানার্থ এই আত্ম-সমৰ্পণ প্রয়োজন। ধাহারা অন্যথা করিবেন, তাহার শত্রু বলিয়া পরিগণিত হইবেন।” কিন্তু এই ঘোষণাপত্রে কেহই আত্মসমর্পণ করিল না। মূলরাজের পক্ষাবলম্বী শিখগণ তখন এতই উত্তেজিত BBS BBB BBB BBB DDDD DDDD BBB BBB BS DDD D DD DBB