পাতা:শিখ-ইতিহাস.djvu/৪৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শিখদিগের আদর্শ ধর্মনীত্তি &3 ব্যক্তি, অপরকে কিরূপে পরিত্রাণ করিবে ? একমাত্র ঈশ্বরই সর্বশক্তিমান ; তিনিই স্বাক্টকর্ত, তিনিই সংহারকর্তা। স্বস্ট-স্থিতি-প্রলয় একমাত্র অনন্ত ঈশ্বরেই সম্ভৰে । গোবিন্দ,–“হাজার व्यूंक s” যিনি ঈশ্বর, তাহার বন্ধু নাই ; তাহার শত্ৰুও নাই। তিনি প্রশংসায় উৎফুল্ল হন না ; অভিশাপ বা নিন্দাবাদেও তিনি বিচলিত নহেন । তিনি প্রশংসা ও নিন্দার অতীত । কৃষ্ণরূপে ব্যক্ত হওয়া তাহাতে কিরূপে সম্ভবে ? তাহার পিতা নাই, মাতা নাই ;– দেবকীর গর্ভে জন্ম পরিগ্রহ করা, র্তাহার পক্ষে সম্ভবপর কি ? গোবিন্দ,–“হাজার শব্দ ।” রাম এবং রহিম, * পরিত্রাণকর্তা নহেন । ব্ৰহ্মা, বিষ্ণু, শিব, স্বর্য, চন্দ্র সকলেই মৃত্যুর অধীন ; “গোবিন্দ-হাজার শব্দ” ৩। শিখ গুরুগণও পূজ্য নহেল। যে আমাকে ঈশ্বর বলিয়া মনে করে, অামি তাঁহাকে নরকের তিমির গর্ভে নিক্ষেপ করি। আমাকে ঈশ্বরের ক্রীতদাস মনে কর ;– তৎপক্ষে কদাচ সন্দিহান হুইও না । আমি ঈশ্বরের ক্রীতদাস মাজে, তাহার স্বষ্টি-চাতুর্য দেখিতেই আমি আসিয়াছি। গোবিন্দ,—“বিচিত্র নাটক ।” ৪। প্রতিমা এবং যোগীগণের উপাসনা। ঈশ্বর ব্যতীত অঙ্ক কাহাকেও উপাসনা করিবে না ; মৃত ব্যক্তির প্রতি মস্তক অবনত করা উচিত নহে । নানক,—“আদিগ্রন্থ,” ‘সুরট রাগিণী’ l কৃপাময়—মুসলমানদিগের দেবতা।