পাতা:শিখ-ইতিহাস.djvu/৪৮৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাণিজ্য সংক্রান্ত সন্ধি & S. সমুদায় সতে এবং পূর্বোল্লিখিত সন্ধিপত্রের অন্তর্গত সমূদায় সত্ত-ব্যবস্থায় উভয় পক্ষ বাধ্য থাকিবেন। যাহাতে উভয় গবর্ণমেণ্টের মধ্যে বন্ধুত্ব অক্ষুণ্ণ থাকে, উভয় গবর্ণমেণ্টই তদনুযায়ী কার্য করিবেন,—র্তাহীদের শাসন-প্রণালীর তাহাই একমাত্র উন্ধেগু হইবে । সেই সন্ধির সতর্ণ অনুসারে, শতদ্রু নদীর পশ্চিমতীরস্থিত মহারাজের রাজ্যের সহিত অনারেবল ইষ্ট ইণ্ডিয়া কোম্পানীর কোনই সম্বন্ধ-সংশ্ৰব থাকিবে না। ২য় সত । এই বাণিজ্য-পোত পরিচালনার পথ সংক্রান্ত যে নির্দিষ্ট শুল্ক বা মাণ্ডলের তালিকা প্রস্তুত হইবে, সেই মূল্য-তালিকা একমাত্র সেই পথের পণ্যদ্রব্য সম্বন্ধেই নিয়োজিত হইবে ; নদীর এক পার হইতে অপর পারে পণ্যদ্রব্য চলাচলের জন্য যে নির্দিষ্ট শুদ্ধ নিৰ্দ্ধারিত আছে, তৎসঙ্গে এই মূল্য-তালিকার কোনই সম্পর্ক থাকিবে না ; সেই সমস্ত শুল্ক আদায় পক্ষে ইহাতে কোনই বাধা জন্মাইবে না ; অথবা যে সকল স্থান হইতে পণ্যদ্রব্যের শুল্ক সংগৃহীত হইয়া থাকে তাহার সহিত বর্তমান শুল্ক-তালিকার কোন সম্পর্ক রহিবে না। সেই সকল বিধি-ব্যবস্থা পূর্বমত অক্ষুণ্ণ থাকিবে। ৩য় সর্ত । এই পথে যে সকল বাণিজ্য-ব্যবসায়ী সচরাচর গতায়াত করিবে, মহারাজের গবর্ণমেণ্টের সীমানা মধ্যে থাকা সময়ে প্রচলিত রীতি অনুসারে তাহাদিগকে মহারাজের প্রভুত্ব-ক্ষমতার প্রতি যথাযোগ্য সম্মান প্রদর্শন করিতে হইবে ; শিখদিগের সামাজিক কিংবা ধর্মসম্পৰ্কীয় বিধিব্যবস্থার প্রতি তাহারা কোন মতে অসম্মান প্রকাশ করিতে পরিবে না ; কিংবা তাহাঁদের দ্বারা শিখজাতির অপ্রীতিকর কোন কার্য অমুষ্ঠিত হইবে না । ৪র্থ সর্ত। যে কেহ উপরোক্ত বাণিজ্য পথে গমনাগমন করিতে ইচ্ছা করিবে, তাহাকে উভয় রাজ্যের এজেণ্ট বা প্রতিনিধির নিকট আপনার অভিপ্রায় পূর্বে জানাইতে হইবে ; অতঃপর যে রীতি-প্রণালী বা “ফারম” বিধিবদ্ধ হইবে, তদনুসারে সেই ব্যক্তিকে উক্ত পথে যাতায়াতের দস্তক' বা পাশ-পত্রের জন্য পূর্বে তাহাকে আবেদন করিতে হইবে ; সেই “দস্তক" বা পাশ-পত্ৰ পাইলে, সেই ব্যক্তি উপরোক্ত পথে অগ্রসর হইতে পারিবে । শতদ্রু নদীর পশ্চিম তীরের কোন স্থান কিংবা অমৃতসর হইতে, যদি কোন ব্যবসায়ী সেই পথে গতায়াত করিতে ইচ্ছা করে, তাহা হইলে, হারিকি কিংবা অন্ত কোন নির্দিষ্ট স্থানে নিয়োজিত মহারাজের এজেণ্ট বা প্রতিনিধির নিকট আপন উন্ধেগু জ্ঞাপন করিয়া, সেই প্রতিনিধির মধ্যবfততায় প্রথমে সেই ব্যবসায়ীকে ‘দস্তক’ বা পাশপত্র লইতে হইবে । বৈদেশিক, ‘হিন্দুস্থানী, আশ্রিত রাজ্য এবং অন্যান্ত স্থানের শিখগণ সকলেই এ পর্যন্ত মহারাজের কর্মচারিগণের নিকট "দন্তক’ বা পাশ-পত্র না লইয়া শতক নদী অতিক্রম করিয়া থাকেন। এক্ষণে আশা করা যায়, এখন হইতে সেই সকল