পাতা:শিখ-ইতিহাস.djvu/৮০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রাচীন ভারতের ধর্মমত טd: তাহাদের প্রতিষ্ঠিত বহুসংখ্যক মসজিদ তাঁহাদের ধর্মনিষ্ঠার এবং বদান্ততার সাক্ষ্য প্রদান করিতেছে। তাহারা অনুসরণীয় ‘চান্দ্র’ বৎসরের পরিবর্তে “সৌর বৎসর গ্রহণ করিয়াছিল। তাহাদের এই ব্যবহার হইতে বুঝা যায় যে, তাহারা প্রাত্যহিক কর্তব্য বিষয়ে অবহেলা করিতে না বটে, কিন্তু কৃষিকার্যে সম্পূর্ণ উদাসীন ছিল।২° মুসলমানগণ রীত্তি-প্রকৃতিতে ভারতবাসীর ন্যায় হইয়াছিল। খৃষ্টীয় ষোড়শ শতাব্দীতে আকবর উভয় মত্তের উপাদান-সমষ্টি একত্র করিয়া জাতীয় শাসন-প্রণালী বা রাজতন্ত্র রাজ্য প্রতিষ্ঠার উপায় উদ্ভাবন করেন । রাজনৈতিক বশ্বত-স্বীকারে সকল সময়ে সামাজিক একতা সাধিত হয় না ; মুসলমানদিগের মনে ইহারই প্রতিঘাত উপস্থিত হয়। আরঙ্গজেব অধৈর্য হইয় পড়েন। আরঙ্গজেবের চাঞ্চল্যের ফলে, মোঘলবংশ শীঘ্রই লোপ প্রাপ্ত হয় । আর এক নূতন সম্প্রদায়ের প্রভুত্ব, ভারতবর্ষের অধিকাংশ ব্যক্তির মানসক্ষেত্রে ক্রমশঃ আধিপত্য বিস্তার করিয়াছিল। তাহারা ক্ষত্রিয়দিগের সমকক্ষ ; পরস্তু অধিকাংশ স্থলে তাহারা ক্ষত্রিয়দিগের অপেক্ষা অধিকতর সাহসী । শঙ্করাচার্য বৈদিক মতের যে সরল অংশটুকু পরিত্যাগ করিয়াছিলেন, তাহারা সেই অংশ পুনরায় গ্রহণ করিয়াছিলেন। এই নৃতন সম্প্রদায় ব্রাহ্মণদিগকে অপবিত্র বলিয়া ঘৃণা করিত ; প্রমাণ-প্রয়োগ দ্বার একেশ্বরত্ব প্রচার করিত, এবং মূর্তিপূজায় ঈশ্বরের ঘৃণার বিষয় প্রকাশ করিত। কিন্তু তহোঁদের এই প্রক্রিয়া ধীরে ধীরে সম্পন্ন হইয়াছিল। কারণ তখনও লোকের বিশ্বাস ছিল, জাতি ও বংশানুক্রমে তাহারা যে সকল দেবদেবীর আরাধনা করে, সেই সকল দেবদেবী বিশেষ বিশেষ জ্ঞান ও শক্তির আধার। কয়েক পুরুষ পূর্বে মম্বর আইন-প্রকরণ প্রচারিত হয়। এক্ষণে মানবের চিস্তা ও আচার-ব্যবহার তদনুসারে পরিচালিত হইতে লাগিল। তখন, অসভ্য বিজেতৃবৃন্দ ও ব্রাহ্মণদিগের জাতিভেদমূলক গৌরবে অনাস্থ প্রদর্শন করিতে পারিলেন না । শেখ এবং ২৪। বস্তুতঃ সৌর অথবা নাক্ষত্রিক বৎসর, সাবুর স্বয',—অথবা আরও ইতর ভাষায় ‘শুর স্বৰ্ষ', —নামে অভিহিত হয়। আরবী মাসের বৎসরেরও এই নাম। খৃষ্টীয় চতুর্দশ শতাব্দীর মধ্যভাগে অথবা ১৩৪১ ও ১৩৪৪ খৃষ্টাব্দের মধ্যে, তোগলক সাহ দাক্ষিণাত্যে এই ‘সৌর বৎসর প্রথম প্রচলন করেন। এক্ষণে মহারাষ্ট্রীয়গণ বিশেষ আবশ্বকীয় দলিল পত্রেও এই বৎসরের উল্লেখ করিয়া থাকেন। হিন্দী (nt=xfội ) artą atgħ șęty Rși fè fors sa i t Compare Princep’s useful Tables, ii. 30. Who refers to a Report, by Lieut-Col Jervis on Weights and Measures, ) ভারতবর্ষের অস্তান্ত স্থানে যে সকল ‘ফসূলী' বা খন্দ' ( শস্ত ) বৎসর প্রচলিত আছে, তাহা আকবর এবং সাজাহানের রাজ্যকালে প্রবর্তিত হয়। -এখনও ইহার ব্যবহার দেখিতে পাওয়া যায়। এমন কি, ইংরেজগণও রাজস্ব-হিসাব-বহিতে এইরূপ বৎসর (ফসূলী ) প্রয়োগ করিয়া থাকেন। এইরূপ প্রত্যেক বৎসর গণনা, খৃষ্টীয় শকের ১লা জুলাই হইতে আরম্ভ হয় ; মুসলমানগণ হিজরী এবং হিন্দুগণ শাক (শক) ও সম্বৎ প্রভৃতি নাম ব্যবহার করিয়া থাকেন। ইহা অপেক্ষ একতা এবং সরলতার নিদর্শন আর কি হইতে পারে ? তখন ইংরেজদিগের সর্বব্যাপী প্রাধান্তহেতু এই উপযোগী মত সহজেই প্রচলিত হইয়াছিল।