পাতা:শিখ-ইতিহাস.djvu/৮৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


g শিখ-ইতিহাস এবং চিন্তাশীল ছিলেন । অনেক স্থলে প্রমান পাওয়া যায় যে, তিনি যৌবনকালেই হিন্দু-মুসলমান উভয় জাতির প্রচলিত ধম্মত শিক্ষা করেন ; এবং কোরাণ ও ব্রাহ্মণদিগের শাস্থে সাধারণ বুৎপত্তি লাভ করিয়াছিলেন।৩° স্ববুদ্ধি এবং স্বাভাবিক ব্যগ্রতা হেতু ধমৰ্মতের নীচ কুসংস্কারগুলিতে তাহার বিরক্তিজন্মে। তিনি শিক্ষিত ও পণ্ডিত সম্প্রদায়ের ঔদাসীন্তে অসন্তুষ্ট ছিলেন ; দর্শনশাস্ত্রের আপাতঃমধুর গৃঢ় তত্ত্বের আশ্রয় গ্রহণে তিনি তৃপ্তি বোধ করিতেন না । কবির এবং গোরক্ষনাথের ধমেণপদেশ যে তাহার ধারণশীল ধী-শক্তির উপর সহজেই স্থায়ী প্রভাব বিস্তার করিয়াছিল, তাহাও অসম্ভৰ নহে ৩৫ যে মুহুর্তে তাহার চিত্তোন্মত্তত জন্মিল, সেই মুহূর্তেই নানক গৃহ পরিত্যাগ করিলেন । অকুতাপ, চিস্তা, অধ্যয়ন, মানব জাতির সহিত বহুল পরিমাণে এবং বিস্তৃত রূপে আলাপ পরিচয় এবং আচার ব্যবহার দ্বারা বিবেক বা জ্ঞানাজ্জনের চেষ্টা করিতে লাগিলেন।৩৩ সম্ভবতঃ নানক ভারতবর্ষের সীমার পরপার পর্যন্ত ভ্রমণ করিয়াছিলেন । এই ইতিহাসে আরও দেখিতে পাওয়া যায় যে, নানক নিজে তাহার ভগ্নীপতির নিকট ব্যবসায় শিক্ষা করিতেন, কিংবা তাহাকে সাহায্য করিতে নিযুক্ত হইয়াছিলেন। ৩৪। পারস্ত ভাষায় একখানি হস্তলিখিত পুথিতে দেখা যায়,—একজন মুসলমান নানকের প্রথম গুরু ছিলেন। ‘সৈর-উল-মুতাক্ষরীণ পাঠে জানা যায় ( i. 110) যে, নানক সৈয়দ হুসেন নামক এক ব্যক্তির নিকট শিক্ষা প্রাপ্ত হন। তিনি নানকের পিতার প্রতিবেশী ছিলেন. নানকের পিতাকে বিশেষ শ্রদ্ধা করিতেন ; তিনি নিঃসন্তান এবং ধনবান ছিলেন। এই পুস্তকে আরও বর্ণিত আছে যে নানক মুসলমানদিগের প্রসিদ্ধ পুস্তকাদি পাঠ করিতেন। ম্যালকমের মতে (Sketch, P, 14 ), মুসলমানগণ বলিত যে খিজির বা ভবিষ্যদ্ব্যক্ত ইলিয়াসের নিকট নানক সর্বপ্রকার নৈসর্গিক বিজ্ঞান শিক্ষা করেন। মুসলমানদিগের প্রচলিত বিবরণ পাঠে জানা যায়, নানক অতি শৈশবকালে বর্ণমালার প্রথম বর্ণের উৎপত্তি বিষয়ক গুঢ় তত্ব জিজ্ঞাসা করিয়া শিক্ষক মহাশয়কে অত্যন্ত চমৎকৃত করিয়াছিলেন। আরবী এবং পারস্ত ভাষার বর্ণমালায় এই বর্ণ একটি ক্ষুদ্র সরল রেখা বা দাগ মাত্র ; ইতর ভাষায় ইহ। ঈশ্বরের একতা প্রতিপন্ন করে। যীশুখৃষ্ট দ্বাদশ বৎসর বয়ঃক্রম কালে, বর্ণমালা সমূহের গৃঢ় মর্ম বুঝাইয়। দিয়া শিক্ষককে কত চমৎকৃত করিয়াছিলেন,—প্রমাণসিদ্ধ বাইবেলে যেরূপ বৰ্ণিত রহিয়াছে, পাঠকগণের হয়ত তাহা স্মরণ থাকিতে পারে। (Strauss, Life of Jesus, i. 272 ) ৩৫ । কবিরের গ্রন্থ হইতে কোন কোন স্থানের মর্ম অথবা সারসংগ্ৰহ “আদি গ্রন্থের অনেক স্থলে দেখিতে পাওয়া যায়। অাদি গ্রন্থের সর্বত্রই -কোন স্থানে গোরক্ষের এবং অধিকাংশ স্থলেই কবিরের মত উল্লিখিত ব উদ্ধত হইয়াছে। ৩৬। কতকগুলি ফকিরের সহিত সময়ে সময়ে সাক্ষাৎকার (Malcolm Sketch, P, 8, 13 ) লাভ করায় এবং একজন দরবেশের ( Debistan, ii. 247 ) নিকট আরও নিয়মিতরূপে উপদেশপ্রাপ্ত হওয়ায় নানকের মন অভিভূত হইয়াছিল। এইরূপ শিক্ষা প্রাপ্ত হওয়ায়, নানক তাহার জীবনের ভবিষ্যৎ গতি নির্দেশ করিবার ক্ষমতা লাভ করিয়াছিলেন। ম্যালকমের বিবরণে লোকঐতিকর আরও গল্প দেখা দ্বীয় যে, নানক কখনও কখনও ঈশ্বরের শক্তিতে অনুপ্রাণিত হইয়া তাহার ভগ্নীপতির গোলার সমস্ত শস্ত বিতরণ করিতেন ; তথাপি সেই শস্ত-গোল সর্বদাই শস্তে পরিপূর্ণ থাকিত। নানকের ভগ্নীপতির মনিব, দৌলত খী লোদি, যখন জানিতেন সকল শস্ত বিতরিত হইয়াছে ; জমাখরচের হিসাব মিলাইয়া দেখিতে পাইতেন, আয়-ব্যয় সমস্তই ঠিক রহিয়াছে।