পাতা:শোধবোধ-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রথম অঙ্ক শোধ বোধ চতুর্থ দৃশ্য শশধব। আঃ, কি বলে । তুমি কি পাগল হযেছে নাকি ? সুকুমাবী। আমি পাগল, না, তুমি চোখে দেখতে পাও না । শশধব । কোনটাই আশ্চৰ্য্য নয়, দুটোই সম্ভব। কিন্তু— সুকুমাবী। আমাদেব হবেনেব জন্ম ত’তেই দেখনি ওদেব মুখ কেমন হ’ষে গেছে। সতীশেব ভাবখানা দেখে বুঝতে পাব না । শশধব। আমার অত ভাব বুঝবাব ক্ষমতা নেই, সে তো তুমি জানোই । সুকুমাবী। সতীশ যখনই আডালে পায, তোমাব ছেলেকে মাবে, আবাব বিধুও তাব পিছনে পিছনে এসে খোকাকে জুজুব ভয দেখায । শশধব। ঐ দেখ, তোমবা ছোটো কথাকে বড়ো ক’বে তোলো । যদিষ্ট বা সতীশ খোকাকে কখনো— মুকুমাৰী। সে তুমি সহ ক’বতে পাবো, আমি পাববো না—ছেলেকে তো তোমাব গভে ধবৃতে হযনি । শশধব । সে কথা আমি অস্বীকাব ক’বতে পাববো না । এখন তোমাব অভিপ্রায কি শুনি । সুকুমাৰী। শিক্ষা সম্বন্ধ তুমি তো বড়ে বড়ো কথা বলো, একবাব তুমি ভেবে দেখ না, আমবা হবেনকে যে ভাবে শিক্ষা দিতে চাই, তাব মাসি তাকে অন্যরূপ শেখায—সতীশেব দৃষ্টাক্ষটিই বা তাব পক্ষে কি বকম, সেটাও তো ভেবে দেখতে হয় । শশধব। তুমি যখন অত বেশি কবে ভাবচো, তখন তাব উপবে অামাব আবে ভাববাব দবকাব কি আছে । এখন কৰ্ত্তব্য কি বলে ? সুকুমাৰী। আমি বলি, সতীশকে তুমি বলে, পুরুষ মানুষ পবেব পয়সায বাবুগিবি কবে, সে কি ভালো দেখতে হয । আৰ যাব সামর্থ্য কম, তাব অত লম্বা চালেই বা দবকাব কি ? છ8 ]