পাতা:শ্মশানের ফুল - নরেন্দ্রকৃষ্ণ চট্টোপাধ্যায়.pdf/১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
শ্মশানের ফুল।
 

করিয়াছি আবাহন—করো’ এই বরদান
বল্লরীর প্রেম যেন ভুলেনা তরুর প্রাণ,
সময়ের আবরণ করিবারে বিমোচন
একমাত্র অবলম্ব তুমি; খসিবে যখন
ব্রততীর প্রেম-আলিঙ্গন তরু দেহ হ’তে
সময়ের তাড়নায়, জাগাইয়া বিধিমতে
পরিচিত স্মৃতি, উত্তেজিত করিয়া বিষাদে,
‘শোকারি’ কালের নাম ঘুচাইবে অবিবাদে।
বাঁধিও যতনে যেন না হয় স্খলিত চ্যূত
যাবত না হয় তরু দাবদ ভস্মীভূত।
আগে যদি জানিতাম—সংসারের এত জ্বালা
তা’হলে কি পরিতাম প্রেম সঞ্জীবনী-মালা।
প্রণয়-কলিকা গুলি একে একে তুলিতাম
ধীরে ধীরে খরস্রোতে সিন্ধুনীরে ঢালিতাম।
দেখিতাম যাবত না আঁখি অন্ধকার পার
অনুরাগ অশ্রুবারি ঢালিতাম অনিবার।
কে আর স্বেচ্ছায় বল নিগড় পড়িতে চায়?
কোমল কুসুম হার কে আর ঠেলিবে পায়?
জীবনের ঊষার আলোকে, ভাতিত যখন
দূরে, যৌবনের ছায়া, ক্ষীণা রেখার মতন
আধ আলো-অন্ধকারে, কি স্বপনে জাগরণে,
দেখিতাম সে সৌন্দর্য্যোচ্ছাস, বিমোহিত মনে।