পাতা:শ্মশানের ফুল - নরেন্দ্রকৃষ্ণ চট্টোপাধ্যায়.pdf/১৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
শ্মশানের ফুল।
 

অন্ধকার ভাগ করি ক্রমে ক্রমে অগ্রসরি
পথ দেখাইয়া চলে শৈশবের সহচরী,
যৌবনের প্রণয়িনী প্রণয়ের যজ্ঞস্থলে
গরল যাহাতে উঠে অমৃত যাহাতে ফলে।
আধেক জীবন কণ্টকিত সংকীর্ণ পন্থায়
পুষ্প সুরভিত পথে ভ্রমিয়াছি দু’জনায়;
পেয়েছি বিষমাঘাত কণ্টকের যাতনায়
চিহ্ণ যার রক্ত-বিন্দু সমস্ত জীবনে গায়
লভিয়াছি সুখ কুসুমের সুবাসে শোভায়
নন্দনের পারিজাত লুটায়ে গিয়েছে পায়
সুখের দ্বাদশ-বর্ষ হাত ধরাধরি করি
ভ্রমিয়াছি বনে বনে যাপিয়াছি বিভাবরী।
হেরিয়াছি উদয়াস্ত শশীর সাগর কূলে
নবীন রবির ছবি দেখেছি দিগন্তমূলে।
প্রকৃতির মাধুরীর নিমন্ত্রণ গান শুনি
ছিলাম দু’জনে আপনাতে পাশরি আপনি।
যেতাম যাদের কাছে ডাকিয়া আদর করে
দিত যা তাদের ছিল যতনে অঞ্চল ভরে।
কখনো সাগরে ভাসি তরঙ্গের ঘায় যায়
প্রেমের সুবর্ণ তরি দিগন্তের অন্তে যায়
উপহার দিত লহরীর কবরী ভূষণ—
জলধির রত্ন-রাশি মানবের আকিঞ্চন।

১১