পাতা:শ্যামলী - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


(প্ৰাণের রস আমাকে শুনতে দাও, আমি কান পেতে আছি । পড়ে আসছে। বেলা ; পাখিরা গেয়ে নিচ্ছে দিনের শেষে কণ্ঠের সঞ্চয় উজাড় ক’রে দেবার গান । ওরা আমার দেহমানকে নিল টেনে নানা সুরের নানা রঙের `ञ् (८२८ ७°८°ट्र ठट्र८ढ्न । ওদের ইতিহাসের আর কোনো সাড়া নেই, কেবল এইটুকু কথা— আছি, আমরা আছি, বেঁচে আছি, বেঁচে আছি। এই আশ্চর্য মুহুতো - এই কথাটুকু পৌছল। আমার মৰ্মে । বিকালবেলায় মেয়েরা জল ভরে নিয়ে যায় ঘটে, তেমনি করে ভরে নিচ্ছি প্ৰাণের এই কাকলি অ্যাকাশ থেকে মনটাকে ডুবিয়ে দিয়ে । আমাকে একটু সময় দাও । আমি মন পেতে আছি