পাতা:শ্যামলী - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


88 দুটি ঘুমন্ত চোখের কালো পক্ষ্মচ্ছায়া পড়েছে পাণ্ডুর কপোলে। ক্লান্ত জগৎ চলেছে পা টিপে জানলার সামনে দিয়ে v83 (*||C7 ওর শান্ত নিশ্বাসের ছন্দে । ঘড়ির ইশারা বধির ঘরে টিকটিক করছে কোণের টেবিলে, বাতাসে দুলছে দিনপঞ্জী দেয়ালের গায়ে । চলতি মুহুতগুলি গতি হারালো ওর স্তব্ধ চেতনায়, মিলল একটি অনিমেষ মূহুতো ; ছড়িয়ে দিল তার অশরীরী ডানা ওর নিবিড় নিদ্রার ”পরে। ওর ক্লান্ত দেহের করুণ মাধুরী মাটিতে মেলা, যেন পূর্ণিমারাতের ঘুমহারানো অলস চাদ সকালবেলায় শূন্য মাঠের শেষ সীমানায়। পোষা বিড়াল দুধের দাবি স্মরণ করিয়ে ডাক দিল ওর কানের কাছে । চমকে জেগে উঠে দেখল আমাকে, তাড়াতাড়ি বুকে কাপড় টেনে অভিমানভারে বললে, “ছি, ছি, কেন জাগালে না। এতক্ষণ ।”