পাতা:শ্যামলী - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৮২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ዓ &ኃ ধেয়ে আসছে খাপছাড়া হাওয়া ; ঝরঝর ক’রে উঠছে তার পাতা বেগনি রঙের পাখি, বুকের কাছে সাদা টেলিগ্রাফের তারে বসে লেজ দুলিয়ে ডাকছে মিষ্টি মৃদু চাপা সুরে । শরৎ-আকাশের নির্মল নীলে ছড়িয়ে আছে কোন অনাদি নির্বাসনের গভীর বিষাদ । মনের মধ্যে হুহু ক’রে উঠছে,- “ফিরে যেতে হবে ।” থেকে থেকে মনে পড়ছে, সেদিনকার সেই জল-মুছে-ফেলা চোখে ঝলে উঠেছিল যে-আলো । সেইদিনই চড়লুম জাহাজে । বন্দরে নেমেই এসেছি চলে । রাস্তার বঁাকে এসে চাইলেম বাড়ির দিকে ; মনে হল, সেখানে বাস নেই কারও ৷ এলেম সদর দরজার সামনে ; দেখি, তালা বন্ধ । ধক ক’রে উঠল। বুকের মধ্যে ; বাড়ির ভিতর থেকে শূন্যতার দীর্ঘনিশ্বাস এসে লাগল আমার অন্তরে ।