পাতা:শ্যামলী - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৮৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ԵՀ অমিয়ার বাবা বললেন, ভয় নেই, নরম হয়ে এল। ব’লে দেশের ভিজে হাওয়ায় । দুদিনে অমিয়া হল তার চেলা । যখন-তখন আসত মহীভূষণ, আশপাশের হাসাহসি কানাকানি গায়ে লাগত না কিছুই দিনের পর দিন যায় । অধীর হয়ে অমিয়ার বাবা তুললেন বিয়ের কথা । भद्दी दव्लव्न, ‘की श्व ।” বাবা রেগে বললেন, “তবে তুমি আসা কেন রোজ ।” অনায়াসে বললে মহীভূষণ, “অমিয়াকে নিয়ে যেতে চাই যেখানে ওর কাজ ।” অমিয়ার শেষ কথা এই-- “এসেছি তারই কাজে । উপকরণের দুর্গ থেকে তিনি করেছেন আমাকে উদ্ধার আমি সুধালেম, “কোথায় আছেন তিনি।” অমিয়া বললে, “জেলখানায় ।”

  • iछिgिकडन्म ৩ জুলাই, ১৯৩৬