পাতা:শ্রীনরোত্তম চরিত - শিশিরকুমার ঘোষ.pdf/৪২

উইকিসংকলন থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


தா W9 সি ছয় গোস্বামীকে শক্তি-সঞ্চার। শ্ৰীনিবাসাচাৰ্য্য প্ৰভু, ঠাকুর মহাশয়ের কিছু বড়। উভয়ের নূতন • যৌবন ও অনুপম সৌন্দৰ্য্য, আর তাহদের প্রেমের কথা ইহা বলিলেই হইবে যে উভয়েই শ্ৰীগৌরাঙ্গের বরপুত্র। শ্ৰীজীব গোস্বামীর निकB উভয়ে ভক্তি গ্ৰন্থ অধ্যয়ন করিতে লাগিলেন । ৭ এখানে ভক্তি গ্রন্থের তাৎপৰ্য্য বলিতে হইতেছে। শ্ৰীগৌরাঙ্গ স্বয়ং */ কোন গ্ৰন্থ লিখেন নাই, তবে তিনি কি ধৰ্ম্ম প্রচার করিলেন তাহা লিপি- । বদ্ধ করিবার নিমিত্ত ছয় জন ভক্ত আদিষ্ট হইয়াছিলেন, তঁাহারা গোস্বামী বলিয়া পরিচিত। যাহাতে তঁাহারা এ কাৰ্য্যে ক্ষম্যবান হয়েন, শ্ৰীভগবান গৌরাঙ্গ এই নিমিত্ত এই ছয় গোস্বামীকে শক্তি সঞ্চার করেন। বৃন্দাবনে এই গোস্বামীগণ যে সমুদ্ৰায় গ্ৰন্থ প্রণয়ন করেন, সাধারণতঃ তাহাদিগকে ভক্তি গ্ৰন্থ বলে । এইরূপ সহস্ৰ সহস্ৰ গ্ৰন্থ বৃন্দাবনে প্রণীত হইল। কিন্তু সে সমুদায় গ্ৰন্থ বৃন্দাবনেই থাকিল, গৌড়ের কোন লোকে তাহা দ্বারা উপকৃত হইলেন না। গোস্বামিগণ এই সমস্ত গ্ৰন্থ নকল করিয়া অনায়াসে বঙ্গে | ^_প্রচার করিতে পারিতেন, কিন্তু তখন সে পুস্তকের মৰ্ম্ম বুঝাইবার লোক ছিল না । গোস্বামিগণের মধ্যে কাহারও বৃন্দাবন ত্যাগ করিবার অধিকার ছিল না। সুতরাং ভক্তি গ্ৰন্থ সমুদয় বৃন্দাবনেই রহিল, গৌড়ীয় বৈষ্ণৰ- “ . গণ বৃন্দাবনে গমন না করিলে আর তাহার আস্বাদন করিতে পারিতেন। না। গৌড়ে এই গ্রন্থ প্রচার করিবার নিমিত্ত প্রধানতঃ শ্ৰীনিবাস সৃষ্ট হইয়াছিলেন । তিনি, শ্ৰীনরোত্তম ও শ্ৰীশ্যামানন্দ, এই তিন জনে শ্ৰীজীব গোস্বামীর নিকট ভক্তি গ্ৰন্থ পাঠ করিতে লাগিলেন । উদ্দেশ্য এই যে, তাহারা কৃতবিদ্য হইলে গৌড়ে আসিবেন, আসিয়া ভক্তি গ্ৰন্থ পড়াইবেন। তিন জনের পাঠ সম্পূর্ণ হইলে শ্ৰীজীব গোস্বামী ভঁাহ-.] 5ܓ digitized at BRC in dia CCTN