পাতা:শ্রীনরোত্তম চরিত - শিশিরকুমার ঘোষ.pdf/৪৩

উইকিসংকলন থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গৌড়ে ভক্তিগ্ৰন্থ প্রচারের আয়োজন { · sa • দ্বিগের প্রত্যেককে এক একটা আখ্যা দিলেন। পূর্বে বলিয়াছি, महब्रॉडभ “ঠাকুর মহাশয়” আখ্যা পাইলেন । শ্ৰীনিবাসের আখ্যা হইল। “আচাৰ্য্য প্ৰভু” আর দুঃখী কৃষ্ণদাসের নাম হইল “শ্যামানন্দ ।” পাঠ সমাপ্ত হইলে শ্ৰীজীব গোস্বামী সাব্যস্ত করিলেন যে, এই তিন * 700 - জনকে গৌড়ে ভক্তিগ্ৰন্থ প্রচার করিতে পাঠাইবেন । এই নিমিত্ত মহাস্তগণের কাহার কিরূপ অভিপ্রায়, জানিবার কারণ শ্ৰীজীব অত্যন্ত । ব্যগ্ৰ হইলেন। রাস সম্মুখে দেখিয়া তিনি অগ্ৰে এ কথা কাহারও ! * নিকট কিছু না বলিয়া সেই উৎসব উপলক্ষে সমস্ত মহান্তগণকে নিমন্ত্রণ • { করিলেন। যাহারা দুরে বাস করেন, তাহারা দ্বাদশী দিবসে উপস্থিত হইলেন। রাসের দুই তিন দিবস পূর্ব হইতে মহােৎসব আরম্ভ হইল । মথুরাবাসী মহাজনগণ ও আগন্নাবাসিগণ ভারে ভারে মহোৎসবের সামগ্ৰী উপস্থিত করিতে লাগিলেন । শ্ৰীজীবের কুঞ্জ সাক্ষাৎ বৈকুণ্ঠ ভূমি হইল। সেখানে শ্ৰীগৌরাঙ্গের ভক্তগণ সকলে উপস্থিত। এই মহোৎসবে যে যে মহান্ত আসিবেন, তাহদের কাহারও কাহারও নাম লিখিয়া পবিত্ৰ হইব। গোস্বামী リーts s ভূগর্ভ আসিলেন, ঠাকুর মহাশয় তাহাদের সঙ্গে । আচাৰ্য্য প্রভুকে সঙ্গে লইয়া গোস্বামী গোপাল ভট্ট আসিলেন। রাধা-কুণ্ড তীর হইতে রঘুনাথ দাস গোস্বামী ও কৃষ্ণদাস কবিরাজ গোস্বামী আসিলেন। মধুপণ্ডিত, প্রেমী কৃষ্ণদাস, কৃষ্ণদাস ব্ৰহ্মচারী, হরিদাসাচাৰ্য্য, রাঘব পণ্ডিত, যাদবাচাৰ্য্য পরমানন্দ ভট্টাচাৰ্য্য, উদ্ধব, গোবিন্দ, মাধব প্রভৃতি ভুবন পাবক সাধকগণ আসিয়া উপস্থিত হইলেন, এবং কৃষ্ণকথা, কৃষ্ণকীৰ্ত্তন, গৌরলীলাকথন প্রভৃতি আনন্দে দিবারান্ত্ৰি সকলে অতিবাহিত করিতে লাগিলেন। অগ্ৰে শ্ৰীগোবিন্দের ও শ্ৰীগৌরাঙ্গের ভোগ দেওয়া হইল। পরে শ্ৰীনিতাই ও শ্ৰীঅদ্বৈত প্রভুদ্বয়ের এবং তার পরে স্বরূপ, digitized at BRCin dia com .