পাতা:শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/২২৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


总坠翻 শ্ৰীমদ্ভগবদগীত।। যেমন ধুমে বহি আবৃত, মলে দর্পণ এবং গর্ভ জরায়ুর দ্বারা আবৃত থাকে, তেমনই কামের দ্বারা (জ্ঞান) আবৃত থাকে । “জ্ঞান” শব্দটা মুলে নাই,--তৎপরিবর্তে “ইদম” আছে। কিন্তু পরশ্লোকে “জ্ঞান” শব্দই আবৃতের বিশেষ্য ; এজন্য এ শ্লোকের অসুবাদেও সেইরূপ করা গেল । ৩৩শ শ্লোকে কথিত হইয়াছে যে জ্ঞানবানও আপন প্রকৃতির অনুরূপ চেষ্টা করে । “সদৃশং চেষ্টতে স্বস্তাঃ প্রকৃতেজ্ঞানবানপি” জ্ঞানবান জ্ঞান থাকিতে কেন এরূপ করে ? তাঁহাই বুঝাইবার জন্ত বলিতেছেন যে জ্ঞান এই কামের দ্বারা আবৃত থাকে ; জ্ঞান এ অবস্থায় অকৰ্ম্মণ্য হয় । উপমা তিনটা অতি চমৎকার ; কিন্তু উপমার কৌশল বুঝাইবার পূৰ্ব্বে বলা আবগুক । “মল” শব্দে শঙ্করাচাৰ্য্য “মল” “ অর্থাৎ “মলাই” বুঝিয়াছেন । কিন্তু স্ত্রীধর স্বামী বলেন, “মলেন” কিনা আগস্তুকেন” । এ অবস্থায় দৰ্পণস্থ প্রতিবিম্ব যে “মল” শব্দের অভিপ্রেত, ইহাই বুঝিতে হুইতেছে । - উপম তিনটীর প্রতি দৃষ্টি করা বাউক । যাহ উপমিত, এবং যাহ। উপমেয়, উভয়ই স্বাভাবিক । বহ্নির স্বাভাবিক আবরণ ধুম ; দপণ থাকিলেই ছায়া বা প্রতিবিম্ব থাকিবে, নহিলে দৰ্পণত্ব নাই ; এবং গর্ভেরও স্বাতবিক অবিরণ জরায়। তেমনই জ্ঞানের আবরণ কামও স্বাভাবিক। ইহা পুৰ্ব্বেই কথিত আছে। উপমেয় ও উপমিত উভয়ই প্রকাশাত্ম ; বহ্নি প্রকাশাত্মক, দর্পণ প্রকাশাত্মক, গর্ত প্রকাশাত্মক - তেমনই জ্ঞানও প্রকাশাত্মক । প্রকাশের জন্ত প্রয়োজন, ক্রিয়ারিশেষ। ফুৎকারাদির দ্বারা