পাতা:শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৬৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বিতীয় অধ্যায় । gళ్ বাস্তবিক আত্মার অস্তিত্ব সম্বন্ধে যেমন কোন বৈজ্ঞানিক প্রমাণ নাই, তেমনি জন্মান্তর সম্বন্ধেও তদ্রুপ কোন প্রমাণ নাই । পক্ষান্তরে যেমন আত্মার অস্তিত্ব অপ্রমাণ করা যায় মা, জন্মস্তিরও অপ্রমাণ করা যায় মঃ । তা ম? যাকৃ, যাহার প্রমাণাভাব তাছ। মানিতে কেহ বাধ্য নহে। এই তত্ত্বে বিশ্বাস যে চিত্তবৃত্তিসকলের সমুচিত অনুশীলনে স্বতঃসিদ্ধ হয়, এমন কথাও আমি বলিতে পারি না। তবে যিনি স্বর্গ নরকাদি মানেন, জন্মান্তরবাদীর অপেক্ষ তাহার বেশী জোর কিছুই নাই। যেমন জন্মাত্তরবাদের আপ্তোপদেশ ভিন্ন অদ্য প্রমাণ নাই, স্বর্গ নরকাদিরও তেমনি অদ্য প্রমাণ নাই। বিস্ময়ের বিষয় এই যে, এ দেশে অনেক শিক্ষিত ব্যক্তি ইউরোপীয়দিগের দেখাদেখি প্রমাণাভাবেও স্বর্গনরকে বিশ্বাসবান--অর্থাৎ সুখ-দুঃখ-যুক্ত পারলৌকিক অবস্থাবিশেষে বিশ্বাসবান, কিন্তু জন্মান্তরে কোন মতেই বিশ্বাসৰান নছেন। কথাটা একটু সবিস্তারে সমালোচনা করিবার আমাদের একটু প্রয়োজন আছে। যিনি আত্মার অস্তিত্ব মানেন না, র্তাহার সঙ্গে ত আমাদের কথাই নাই, কেন ল তিনি কাজেই জন্মান্তর মানিবেন না । কিন্তু ষিনি অস্বয়ার অস্তিত্ব ও অবিনাশিত্তা মানেন, তাছার সম্মুখে একটা বড় গুরুতর প্রশ্ন আপনা হইতেই উপস্থাপিত হয়। জীবাত্মা যদি অবিনশ্বর হইল, তবে দেহাঙ্কে তাহার কি গতি হর ? এ বিষয়ে জগতে অনেকগুলি মত প্রচলিত অাছে । ১ । ভূতযোনি প্রোপ্ত হয় । ইহা সচরাচর অসভ্য জাক্তি দিগের বিশ্বাস । $