পাতা:শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৭৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*R শ্ৰীমদ্ভগবদগীতা । هر مہمہم বৈজিক, অর্থাৎ পিতা মাতা বা পূৰ্ব্বপুরুষগণের প্রকৃতির ফল । আমি ইহাও মানি, যে মাত পিতা বা তৎপুৰ্ব্বগামী পূৰ্ব্বপুরুষগণের প্রকৃতি এমন কি সংস্কার পর্য্যন্ত আমাদিগকে পাইতে হয়, এবং পাশ্চাত্য বিজ্ঞানবিৎ পণ্ডিতেরা তাহা সংগ্রমাণ করিয়াছেন। কিন্তু মনুষ্য মধ্যে যে তারতম্যের কথা বলিতেছি, তাহা তোমার বৈজিক তত্ত্বে নিঃশেষে বুঝা যায় না। দেখ, এক মাতার গর্ভে এক পিতার ঔরসে অনেকগুলি ভ্রাতা জন্মে, তাহাদের মাতা পিতা বা পূৰ্ব্বপুরুষ সম্বন্ধে কোনই প্রভেদ নাই ; অথচ ভ্রাতৃগণের মধ্যে বিশেষ তারতম্য দেখা যায় । ইহার উত্তরে তুমি বলিতে পার বটে, যে গর্ভাধান কালে মাত পিতার দৈহিক অবস্থা এবং যতদিন শিশু গর্ভে থাকে, ততদিন মাতার দৈহিক ও মানসিক অবস্থা ও তৎকালীন ঘটনা সকল এই তারতম্যের কারণ । না হয় ইছাও মানিলাম—কিন্তু যমজেও এরূপ তারতম্য দেখা যায়—সে তারতম্যের কিছু কারণ নির্দেশ করিতে পার কি ?” ইহারও বৈজ্ঞানিক উত্তর দিতে পারেন । তিনি বলিতে পারেন, যে এই সকল তারতম্য এতদূর মনুষ্য-পরিজ্ঞাত নৈসর্গিক নিয়মাধীন বলিয়া বুঝা গেল, তবে বাকি টুকু মনুষের জ্ঞেয় নিয়মের অধীন যলিয়। বিবেচনা করা উচিত—পূৰ্ব্বজন্ম কল্পনা করা অনাবশুক। এখনও বিজ্ঞান এতদূর যায় নাই, যে এই ৷ তারতম্যের কারণ সৰ্ব্বত্র নির্দেশ করা যায় ; কিন্তু একদিন যাইবে ভরসা করা যায় । এ দিকে জন্মান্তরযাদীও বলিতে পারেন যে, এ তোমার জানাজি কথা । যাহা বিজ্ঞান এখন বুঝাইতে পারিতেছে না,