পাতা:শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত পঞ্চম ভাগ.djvu/১০৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


○b শ্ৰীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত—৫ম ভাগ ( ১৮৮৩, ২৩শে সেপ্টেম্বর ছিল, সাধকও ছিল। শক্তি-সাধক ; মা’র ভাবে মাঝে মাঝে উন্মত্ত হয়ে যেত । মাঝে মাঝে ব’লত, "হারে রে, রে নিরালম্ব লম্বোদরজননী কং যামি শরণম ? তখন পণ্ডিতেরা কেঁচো হয়ে যেত। আমিও আবিষ্ট হয়ে যেতুম। আমার খাওয়া দেখে বোলত, তুমি ভৈরবী নিয়ে সাধন করেছ।” “একজন কৰ্ত্তাভজা নিরাকারের ব্যাখ্যা করলে। নিরাকার অর্থাৎ নীরের আকার! গৌরী তাই শুনে মহা রেগে গেল।” “প্রথম প্রথম একটু গোড়। শাক্ত ছিল ; তুলসীপাত দুটো কাঠি ক’রে তুলত—ছুত না ( সকলের হাস্ত )—তারপর বাড়ী গেল ; বাড়ী থেকে ফিরে এসে আর অমন করে নাই ।” “আমি একটি তুলসীগাছ কালীঘরের সম্মুখে পুতেছিলাম , ম’রে গেল! পাট বলি যেখানে হয়, সেখানে নাকি হয় না ।” 動

  • গৌরী বেশ সব ব্যাখ্যা করত। এ ঐ P ব্যাখ্যা করত-এ শিষ্য ! ঐ তোমার ইষ্ট ! আবার রাবণের দশমুণ্ড বোল্‌ত, দশ ইঞ্জিয়। তমোগুণে কুম্ভকৰ্ণ, রজোগুণে রাবণ, সত্ত্বগুণে বিভীষণ । তাই বিভীষণ রামকে লাভ

করেছিল।” [ রাম, তারক ও নিত্যগোপাল ] ঠাকুর মধ্যাহ্নে সেবার পর একটু বিশ্রাম করিতেছেন। কলিকাতা হইতে রাম, তারক ( শিবানন্দ ) প্রভৃতি ভক্তগণ আসিয়া উপস্থিত হইলেন। ঠাকুরকে প্রণাম করিয়া তাহারা মেঝেতে বসিলেন। মাষ্টরও মেঝেতে বসিয়া আছেন। রাম বলিতেছেন, “আমরা খোল বাজনা শিখিতেছি।” শ্রীরামকৃষ্ণ ( রামের প্রতি )—নিত্যগোপাল বাজাতে শিখেছে ? রাম—ন, অমনি একটু সামান্ত বাজাতে পারে। শ্রীরামকৃষ্ণ—তারক ? রাম—সে অনেকটা পারবে । শ্রীরামকৃষ্ণ—তা হ’লে আর অত মুখ নীচু ক’রে থাকৃবে না ; একটা দিকে খুব মন দিলে ঈশ্বরের দিকে তত থাকে না।