পাতা:শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত পঞ্চম ভাগ.djvu/১৫০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তান্ত্রিক—আজ্ঞা ই । ঐীরামকৃষ্ণ—এগার পাত্র ; না ? তান্ত্রিক-তিনতোলা প্রমাণ। শব সাধনের জন্ত । স্ত্রীরামকৃষ্ণ—আমার মুর ছু’বার যো নেই। তান্ত্রিক—আপনার সহজানন্দ ; সে আনন্দ হলে কিছুই চাই না ! স্ত্রীরামকৃষ্ণ—আবার দেখো, আমার জপ তপও ভাল লাগে না। তবে সৰ্ব্বদা স্মরণ মনন আছে । আচ্ছা, ষড়চক্র, ওটা কি ? তান্ত্রিক—আচ্ছা, ও সব নানাতীর্থের ন্যায়। এক এক চক্রে শিবশক্তি: চক্ষে দেখা যায় না ; কাটলে বেরোয় না। পদ্মের মৃণাল শিবলিঙ্গ ; পদ্মকৰ্ণকায় আদ্যশক্তি যোনিরূপে । , মণি নিঃশব্দে সমস্ত শুনিতেছেন। তার দিকে তাকাইয়া শ্রীরামকৃষ্ণ তান্ত্রিক ভক্তকে কি জিজ্ঞাসা করিতেছেন । ত্রীরামকৃষ্ণ (তান্ত্রিকের প্রতি)–আচ্ছা, বীজমন্ত্র না পেলে কি সিদ্ধ হয় ? ' তান্ত্রিক—হয় ; বিশ্বাসে—গুরুবাক্যে বিশ্বাস । == ত্রীরামকৃষ্ণ (মণির দিকে ফিরিয়া ও র্তাহাকে ঈঙ্গিত করিয়া )— বিশ্বাস । তান্ত্রিক ভক্ত চলিয়া গেলে ব্রাহ্ম সমাজভুক্ত শ্ৰীযুক্ত জয়গোপাল সেন আসিয়াছেন । শ্রীরামকৃষ্ণ র্তাহার সহিত কথা কহিতেছেন ৷ রাখাল, মণি প্রভৃতি ভক্তের কাছে আছেন। অপরাহ্ন। -- ঐরামকৃষ্ণ (জয়গোপালের প্রতি)—কারুকে, কোন মতকে বিদ্বেষ করতে নাই। নিরাকারবাদী সাকারবাদী সকলেই তার দিকে যাচ্ছে, জ্ঞানী, ধোগী, ভক্ত সকলেই উকে খুজিছে, জ্ঞান পথের লোক তাকে বলে ব্রহ্ম, ক্ষোর্থীরা বলে আত্মা, পরমাত্মা । ভক্তেরা বলে ভগবান ; আবার আছে যে, লিভ্য । ঠাকুর, নিত্য দাস। ... ore জয়গোপাল—সব পথই সত্য কেমন করে জানব ? শ্রীরামকৃষ্ণ–একটা পথ দিয়ে ঠিক যেতে পারলে তার কাছে পৌঁছান যায়। তখন সব পথের খবর জানতে পারে। যেমন একবার কোল উপায়ে ছাদে