পাতা:শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত পঞ্চম ভাগ.djvu/১৫৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


388 শ্ৰীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত—৫ম ভাগ [ ১৮৮৪, মার্চ ৯ মণিলাল—আছে, নন্দিনীর • ঘরে ভক্ত মেমের ছবি আছে। মেম ভজনা ( Prayer ) ক’রছে। আর একখানা ছবি আছে—বিশ্বাস পাহাড় ধরে একজন আছে, নীচে অতলস্পর্শ সমুদ্র, বিশ্বাস ছেড়ে দিলে একবারে অতল জলে পড়ে যাবে। “আর একটী ছবি আছে—কয়ট বালিকা বর আসবে বলে প্রদীপে তেল ভরে জেগে বসে আছে। যে ঘুমিয়ে পড়েছে, সে দেখতে পাবে না । # to a #C# 3-sal org " (Parable of the Ten Virgins. ) শ্রীরামকৃষ্ণ (সহস্তে )—এটা বেশ । মণিলাল—আরো ছবি আছে—বিশ্বাসের বৃক্ষ । আর পাপ পুণ্যের ছবি ( Sin and virtue. ) স্ত্রীরামকৃষ্ণ (ভবনাথের প্রতি )—বেশ সব ছবি ; তুই দেখতে যাস। কিয়ৎক্ষণ পরে ঠাকুর বলিতেছেন, “এক একবার ভাবি–তখন ওসব ভাল লাগে না। প্রথম একবার পাপ পাপ করতে হয়, কিসে পাপ থেকে মুক্তি হয়, কিন্তু তার কৃপায় একবার ভালবাসা যদি আসে, একবার রাগ ভক্তি যদি আসে তাহ’লে পাপ পুণ্য সব ভুল হ’য়ে যায়। তখন আইনের সঙ্গে, শাস্ত্রের সঙ্গে তফাৎ হ’য়ে যায় ! অনুতাপ করতে হবে, প্রায়শ্চিত্ত করতে হবে, এ সব ভাবনা আর থাকে না । o “যেমন বাক নদী দিয়ে অনেক কষ্টে এবং অনেকক্ষণ পরে গন্তব্য স্থানে যাচ্ছে । কিন্তু যদি বন্তে হয় তাহ’লে সোজা পথ দিয়ে অল্পক্ষণের মধ্যে গন্তব্য স্থানে পৌছান যায়। তখন ড্যাঙ্গাতেই এক বঁাশ জল। “প্রথম অবস্থায় অনেক ঘুরতে হয়, অনেক কষ্ট করতে হয়। “রাগভক্তি এলে খুব সোজা। যেমন মাঠের উপর ধান কাটার পর যেদিক দিয়ে যাও। আগে আলের উপর দিয়ে ঘুরে ঘুরে যেতে হ’ত এখন যেদিক দিয়ে যাও। যদি কিছু খড় থাকে—জুতা পায়ে দিয়ে চলে গেলে আর কোন কষ্ট নাই। বিবেক, বৈরাগ্য, গুরুবাক্যে বিশ্বাস এসব থাকলে আর কোন কষ্ট নাই।”

  • নন্দিনী—মণি মল্লিকের বিধৰ কন্যা, ঠাকুরের ভক্ত ।