পাতা:শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত পঞ্চম ভাগ.djvu/১৯৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Ꮌbr8 শ্ৰীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত—৫ম ভাগ [ ১৮৮৫, ফ্রেব্রুয়ারী ২৫ অন্য লোকের শিক্ষা হয় না, লোক-শিক্ষা হয় না। সন্ন্যাসীর দেহধারণ লোকশিক্ষার জন্ত । “মেয়েদের সঙ্গে বসা কি বেশীক্ষণ আলাপ, তাকেও রমণ বলছে রমণ আট প্রকার * । মেয়েদের কথা শুনছি ; শুনতে শুনতে আনন্দ হচ্ছে ; ও এক রকম রমণ। মেয়েদের কথা বলছি ( কীৰ্ত্তনম ) ও একরকম রমণ, মেয়েদের সঙ্গে নির্জনে চুপি চুপি কথা কচ্ছি ; ও এক রকম। মেয়েদের কোন জিনিস কাছে রেখে দিয়েছি, আনন্দ হচ্ছে ; ও একরকম । স্পর্শ করা এক রকম । তাই গুরুপত্নী যুবতী হলে পাদস্পর্শ করতে নাই। সন্ন্যাসীদের এই সব নিয়ম। সংসারীদের আলাদা কথা ; দু একটী ছেলে হলে ভাই-ভগ্নীর মত থাকবে ; তাদের অন্ত সাত রকম রমণে তত দোষ নাই । “গৃহস্থের ঋণ আছে। দেবখণ, পিতৃঋণ, ঋষিঋণ ; আবার মাগঋণও আছে, একটি দুটি ছেলে হওয়া আর সতী হলে প্রতিপালন করা।

  • সংসারীরা বুঝতে পারে না, কে ভাল স্ত্রী, কে মন্দ স্ত্রী ; কে বিদ্যাশক্তি, কে অবিদ্যাশক্তি। যে ভাল স্ত্রী বিদ্যাশক্তি, তার কাম ক্রোধ এ সব কম ; ঘুম কম ; স্বামীর মাথা ঠেলে দেয়। যে বিদ্যাশক্তি তার স্নেহ, দয়া, ভক্তি, লজ্জা এই সব থাকে। সে সকলেরই সেবা করে বাৎসল্য ভাবে ; আর স্বামীর যাতে ভগবানে ভক্তি হয় তার সাহায্য করে। বেশী খরচ করে না, পাছে স্বামীর বেশী খাটুতে হয়, পাছে ঈশ্বর চিন্তার অবসর না হয়।

“আবার পুরুষ মেয়ের অন্য অন্ত লক্ষণ আছে। খারাপ লক্ষণ টেরা, চোক কোটুর, উন পাজর, বিড়াল চোখ, বাছুরে গাল।” গিরীশ—আমাদের উপায় কি ? শ্রীরামকৃষ্ণ-ভক্তিই সার। আবার ভক্তির সত্ত্ব, ভক্তির রজঃ, ভক্তির তম, আছে। “ভক্তির সত্ত্ব দীন হীন ভাব ; ভক্তির তমঃ যেন ডাকাত পড়া ভাব, আমি

  • স্মরণং কীত্তনমূ কেলিঃ প্রেক্ষণং গুহাভাষণং ।

সংকল্পোহধ্যবসায়শ্চ ক্রিয়ানিস্পত্তিরেব চ। এতস্মৈথুনমষ্টাঙ্গং ।