পাতা:শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত পঞ্চম ভাগ.djvu/২০১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তীিয় পরিচ্ছেদ গিরীশের শান্ত ভাব, কলিতে দ্রের ভক্তি ও মুক্তি শ্রীরামকৃষ্ণ—আর আছে স্বপ্ন-সিদ্ধ আর কৃপা-সিদ্ধ। এই বলিয়া ঠাকুর ভাবে বিভোর হইয়া গান গাহিতেছেন— হামাখন কি সবাই পায়, অবোধ মন বোঝে না একি দায় । শিবেরই অসাধ্য সাধন মন মজান রাঙ্গা পায় ॥ ইজাদি সম্পদ মুখ তুচ্ছ হয় যে ভাবে মায়, সদানন্দ মুখে ভাসে শু্যাম যদি ফিরে চায় ॥ যোগীন্দ্র মুনীজ ইন্দ্র সে চরণ ধ্যানে না পায়, নিগুণে কমলাকাস্ত তবু সে চরণ চায় ॥ ঠাকুর কিয়ৎক্ষণ ভাবাবিষ্ট হইয়া রহিয়াছেন। গিরীশ প্রভৃতি ভক্তেরা সম্মুখে আছেন । কিছু দিন পূৰ্ব্বে ষ্টার থিয়েটারে গিরীশ অনেক কথা বলিয়াছিলেন, এখন শাস্তভাব । শ্রীরামকৃষ্ণ ( গিরীশের প্রতি ) –তোমার এ ভাব বেশ ভাল ; শাস্তভাব । মাকে তাই বলেছিলাম, মা ওকে শাস্ত করে দাও, যা তা আমায় না বলে । গিরীশ (মাষ্টারের প্রতি )—আমার জিভ কে যেন চেপে ধরেছে ; আমায় কথা কইতে দিচ্ছে না। শ্রীরামকৃষ্ণ এখনও ভাবস্থ, অস্তমুর্থ। বাহিরের ব্যক্তি, বস্তু ক্রমে ক্রমে সব যেন ভুলে যাচ্ছেন। একটু প্রকৃতিস্থ হইয়া মনকে নাবাচ্ছেন। ভক্তদের আবার দেখিতেছেন। (মাষ্টার দৃষ্টে ) এরা সব সেখানে (দক্ষিণেশ্বরে ) যায় ঃ–তা যায় তো যায় ; মা সব জানে । ( প্রতিবেশী ছোকরার প্রতি )—কি গো ! তোমার কি বোধ হয় ? মামুষের কি কৰ্ত্তব্য ? aఇrkడాఙEబాప్టి