পাতা:শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত পঞ্চম ভাগ.djvu/২৩২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রীরামকৃষ্ণ, নরেজ-কৰ্ম্মযোগ ও সৰ্ব্বধৰ্ম্মসমন্বয় ২১৭ —তিনি ছাড়া কিছুই নাই—সংসার, স্বদেশ তিনি ছাড়া নহে। ভগবানের সাক্ষাৎকারের পর দেখিবে তিনিই পরিপূর্ণ হইয়া রহিয়াছেন। বশিষ্ঠদেব রামচন্দ্রকে বলিয়াছিলেন, রাম, তুমি যে সংসার ত্যাগ করিবে বলিতেছ, আমার সঙ্গে বিচার কর ; যদি ঈশ্বর এ সংসার ছাড়া হন তবে ত্যাগ করিও * রামচন্দ্র আত্মার সাক্ষাৎকার করিয়াছিলেন, তাই চুপ করিয়া রছিলেন। ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণ বলিতেন, ছুরির ব্যবষ্ঠার জানিয়া ছুরি হাতে কর! স্বামী বিবেকানন্দ যথার্থ কৰ্ম্মযোগী কাহাকে বলে, দেখাইলেন। দেশের কি উপকার করিবে ? স্বামী জানিতেন যে দেশের দরিদ্রদের ধন দিয়া সাহায্য করা অপেক্ষা অনেক মহৎ কার্য্য আছে। ঈশ্বরকে জানাইয়া দেওয়া প্রধান কাৰ্য্য ! তৎপরে বিদ্যাদান ; তাহার পরে জীবনদান : তাহার পরে অন্নবস্ত্রদান । সংসার দুঃখময়। এই দুঃখ তুমি কয়দিনের জন্ত ঘুচাইবে ? ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণ কৃষ্ণদাস পালকে + জিজ্ঞাসা করিলেন, “আচ্ছা, জীবনের উদ্দেশ্য কি ?” কৃষ্ণদাস বলিলেন “আমার মতে জগতের উপকার করা, জগতের দুঃখ দূর করা।” ঠাকুর বিরক্ত হইয়া বলিলেন “তোমার ওরূপ রাষ্ট্ৰীপুতী বুদ্ধি : কেন ? জগতের দুঃখনাশ তুমি করবে ? জগৎ কি এতটুকু ? বর্ষাকালে গঙ্গায় কণকড হয় জান ? এইরূপ অসংখ্য জগৎ আছে। এই জগতের পতি যিনি তিনি সকলের খবর নিচ্ছেন। তাকে আগে জানা—এই জীবনের উদেশ্ব। তারপর যা হয় কোরো।” স্বামীও একস্থানে বলিয়া গিয়াছেন,— “Spiritual knowledge is the only thing that can remove our miseries for ever ; any other knowledge satisfies wants only for a time * * * He who gives spiritual knowledge is the greatest benefactor of mankind. * * * Next to spiritual help ( &oissa ) comes intellectual help (fowinta )—the gift of secular knowledge. This is far higher than the giving - ബ --ബ-- Pal a = -ക്കു---=ങ്ങ=്-- =ബ

  • যোগবাশিষ্ঠ ।

+ খ্ৰীকৃষ্ণদাস পাল দক্ষিণেশ্বরে কালী মন্দিরে শ্রীরামকৃষ্ণকে দর্শন করিয়াছিলেন । ঃ রাড়ীপুর্তী বুদ্ধি-বিধবার ছেলের বুদ্ধি, হীন বুদ্ধি কেন না, সে ছেলে অনেক নীচ উপায়ে মানুষ হয় ; পরের তোষামোদ করিয়া, ইত্যাদি ।