পাতা:শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত পঞ্চম ভাগ.djvu/২৩৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


- Հ Ձե ঐহীরামকৃষ্ণ কথামৃত-৫ম ভাগ [ পরিশিষ্ট’ of food and clothes; the next gift is the gift of life and the fourth, the gift of food.” [Karmayoga (New York); My Plan of Campaign (Madras.) ঈশ্বরদর্শনই জীবনের উদ্দেশু, আর এ দেশের ঐ এক কথা। আগে ঐ কথা তাহার পর অন্ত কথা ! 'রাজনীতি’ ( Politics ) প্রথম হইতে বলিলে চলিবে না। আগে অনন্তমন হইয়া ভগবানের ধ্যান চিন্তা কর, হৃদয়মধ্যে র্তাহার অপরূপ রূপ দর্শন কর । তাছাকে লাভ করিয়া তখন 'স্বদেশে’র মঙ্গলসাধন করিতে পরিবে ; কেন না, তখন মন অনাসক্ত ; আমার দেশ’ বলিয়া সেবা, নহে—সৰ্ব্বভূতে ভগবান আছেন বলিয় তাহার সেবা। তখন স্বদেশ বিদেশ ভেদবুদ্ধি থাকিবে না। তখন কিসে জীবের মঙ্গলসাধন হয়, ঠিক বুঝিতে পার৷ যাইবে । ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণ বলিতেন, “দাবাব’ড়ে যারা খেলে, তারা ঠিক চাল বুঝতে তত পারে না ; যার উদাসীন, কেবল ব’সে খেলা দেখে, তার উপর চাল বেশ বলে দিতে পারে।” কেন না, উদাসীনের নিজের কোন দরকার নাই, রাগদ্বেষবিমুক্ত উদাসীন অনাসক্ত জীবন্মুক্ত মহাপুরুষ নির্জনে অনেক দিন সাধনা করিয়া যাহা লাভ করিয়া বসিয়া আছেন, তাহার কাছে আর কিছুই ভাল লাগে না :— যং লব্ধা চামরং লাভং মন্ততে নাধিকং তত: যস্মিন স্থিতো ন দুঃখেন গুরুণাপি বিচাল্যতে ॥ হিন্দুর রাজনীতি, সমাজনীতি, তাই সমস্তই ধৰ্ম্মশাস্ত্র। মন্থ, যাজ্ঞবল্ক্য, পরাশর ইত্যাদি মহাপুরুষ এই সকল ধৰ্ম্মশাস্ত্রের প্রণেতা। উহাদের কিছুরই প্রয়োজন নাই। তথাপি ভগবান কর্তৃক প্রত্যাদিষ্ট হইয়া গৃহস্থের জন্য র্তাহারা শাস্ত্র প্রণয়ন করিয়াছেন । র্তাহারা উদাসীন হইয়া দাবাব’ড়ের চাল বলিয়া দিতেছেন, তাই দেশকালপাত্রবিশেষে তাহাদের কথায় একটি ভুলইবার হ সম্ভাবনা নাই । স্বামী বিবেকানন্দও কৰ্ম্মযোগী। অনাসক্ত হইয়া পরোপকারব্রতরূপ জীবসেবারূপ কৰ্ম্ম করিয়াছেন। তাই কৰ্ম্মীদের সম্বন্ধে তাহার এত মূল্য। তিনি অনাসক্ত হইয়। এই দেশের মঙ্গলসাধন করিয়াছেন, যেমন পূৰ্ব্বতন মহা