পাতা:শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত পঞ্চম ভাগ.djvu/৩০২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শ্রীরামকৃষ্ণ রাজেন্দ্রের বাড়ীতে রাম, মনোমোহন প্রভৃতি সঙ্গে ২৮৩

  • তাই বলি– যদ্যপি আমার গুরু শুড়িবাড়ি যায়,

해 তথাপি আমার গুরু নিত্যানন্দ রায় ।” “সকলেই গুরু হতে চায়, শিস্য হতে বড় কেহ চায় না। কিন্তু দেখ, উচু জমিতে বৃষ্টির জল জমে না। নীচু জমিতে—খাল জমিতে জমে।” “গুরু যে নামটি দেবেন বিশ্বাস করে নামটি লয়ে সাধন ভজন করতে হয় ।” “যে শামুকের ভিতর মুক্ত তয়ের হয়, এমনি আছে, সেই শামুক স্বতিনক্ষত্রের বৃষ্টির জলের জন্ত প্রস্তুত হয়ে থাকে। সেই জল পড়লে একেবারে অতল জলে ডুবে চলে যায়, যতদিন না মুক্ত হয়।” য় গীর অনেকগুলি ব্রাহ্মভক্ত আসিয়াছেন দেখিয়া বলিতেছেন— “ব্রাহ্মসভা না শোভা ? ব্রাহ্মসমাজে নিয়মিত উপাসনা হয়, সে খুব ভাল ; কিন্তু ডুব দিতে হয়। শুধু উপাসন, লেকচারে হয় না। তাকে প্রার্থনা করতে হয়, যাতে ভোগাশক্তি চলে গিয়ে তার পাদপদ্মে শুদ্ধাভক্তি হয়।”

  • হাতির বাহিরের দাত আছে আবার ভিতরের দাতও আছে। বাহিরের দাতে শোভা, কিন্তু ভিতরের দাতে খায়। তেমনি ভিতরে কামিনীকাঞ্চন ভোগ করলে ভক্তির হানি হয় ।”

“বাহিরে লেকচার ইত্যাদি দিলে কি হবে ? শকুনি উপরে উঠে কিন্তু ভাগাড়ের দিকে নজর। হাওয়াই হুস করে প্রথমে আকাশে উঠে যায় কিন্তু পরক্ষণেই মাটিতে পড়ে যায়।” “ভোগাসক্তি ত্যাগ হলে শরীর যাবার সময় ঈশ্বরকেই মনে পড়বে। তা’ না হ’লে এই সংসারের জিনিষই সব মনে পড়বে—স্ত্রী, পুত্র, গৃহ, ধন, মান সন্ত্রম ইত্যাদি। পার্থী অভ্যাস করে রাধাকৃষ্ণ বোল বলে। কিন্তু বেড়ালে ধরলে ক্যা ক্যা করে ।”