পাতা:শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত পঞ্চম ভাগ.djvu/৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


bo ঐশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত—৫ম ভাগ ( ১৮৮৩, ১০ই জুন শ্ৰীমতী স্বহস্তে শ্ৰীকৃষ্ণের চিত্র একেছেন, কিন্তু পা আঁকেন নাই ; পাছে তিনি মথুরায় চলে চান। “আমি এ সব গান ছেলেবেলায় খুব গাইতাম। এক এক যাত্রার সমস্ত পালা গেয়ে দিতে পাৰ্ত্তাম । কেউ কেউ ব’লত আমি কালীয় দমন যাত্রার দলে ছিলাম।” একজন ভক্ত নূতন উড়ানি গায়ে দিয়া আসিয়াছেন। রাখালের বালক স্বভাব, কঁচি এনে তার চাদরের ছিল কাটিতে যাইতেছেন। ঠাকুর বলিলেন, ‘কেন কাটছিস্ ! থাকনা, শালের মত বেশ দেখাচ্ছে। হাগা, এর কত দাম ।” তখন বিলাতি চাদরের দাম কম ছিল। ভক্তটি বলিলেন,—এক টাকা ছয় আনা জোডা। ঠাকুর বলিতেছেন, বল কি গো। জোড়া ! এক টাকা ছয় আনা জোড়া । কিয়ৎক্ষণ পরে ঠাকুর ভক্তকে বলিতেছেন, যাও গঙ্গা নাওগে, একে তেল দে রে ! স্বানান্তে তিনি ফিরিয়া আসিলে ঠাকুর তাক হইতে একটি আম্র লইয়া তাছাকে দিলেন। বলিতেছেন এই আমটি একে দিই ; তিনটা পাশ করা। আচ্ছা তোমার ভাই এখন কেমন ? ভক্ত-ই তার ঔষধ ঠিক পড়েছে, এখন খাটলে হয়। ঐরামকৃষ্ণ—তার একটি কৰ্ম্মের যোগাড় করে দিতে পার? বেশ ত, তুমি মুরুঝি হবে! ভক্ত-ভাল হলে সব সুবিধা হয়ে যাবে।