পাতা:শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত পঞ্চম ভাগ.djvu/৯৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


brᎸ শ্ৰীশ্ৰীরামকৃষ্ণ কথামৃত-৫ম ভাগ ( ১৮৮৩, ১৮ই আগষ্ট ঠাকুর একটু চুপ করিয়াছেন। আবার বলিতেছেন, 'ও! বুঝেছি এতেই তোর কাজ হবে ? ষোল কলার এক কলা শক্তিতে তোর কাজ অর্থাৎ লোকশিক্ষা হবে, এই কথা কি ঠাকুর বলিতেছেন ? এটবার ভাবাবিষ্ট অবস্থায় মাষ্টার প্রভৃতিকে আদ্যাশক্তি ও অবতার-তত্ত্ব বলিতেছেন। “যিনিই ব্রহ্ম তিনিই শক্তি। র্তাকেই মা বলে ডাকি। যখন তিনি নিষ্ক্রিয় তখন তাকে ব্ৰহ্ম বলি, আবার যখন সৃষ্টি, স্থিতি, সংহার কার্য্য করেন, তখন তাকে শক্তি বলি। যেমন স্থির জল, আর জলে ঢেউ হয়েছে। শক্তিলীলাতেই অবতার। অবতার প্রেমভক্তি শিখাতে আসেন। অবতার যেন গাতীর বাট। দুগ্ধ বাটের থেকেই পাওয়া যায় ! "মামুষে তিনি অবতীর্ণ হন। যেমন ঘুটির ভিতর মাছ এসে জমে।” ভক্তেরা কেহ কেহ ভাবিতেছেন, ত্রীরামকৃষ্ণ কি অবতার পুরুষ ? যেমন শ্ৰীকৃষ্ণ, চৈতন্তদেব, Christ.