পাতা:শ্রীশ্রীহরি লীলামৃত.djvu/১১৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*. আদি খণ্ড । '= ۶’ع 3 a 6 যে দিন করিলে হরি বসন হরণ। । জান মন কি জানিয়ে হরিলে বসন। "শ্লোক । লজ্জা ঘৃণ তথা ভয় চুতি জুগুপ্তা৷ পঞ্চম। শোকং সুখং তথা জাতি অষ্ট পাশ প্রকীর্তিত।. পয়ার । লজ্জা ঘৃণা ভয় ভ্রষ্ট। গ্লানি দুঃখ সুখ। সপ্ত গেছে লজ্জা পাশে পরীক্ষ কৌতুক। পতি ত্যঙ্গে বনে এসে করে প্রেম সম্বা। | পরীক্ষিলে গোপীদের অেেছ কিনা লজ্জা - কৃষ্ণ মুখে মুখিণী শ্ৰীকৃষ্ণ প্রতি আৰ্ত্তি। শয়নে স্বপ্লনে জাগরণে কৃষ্ণ ক্ষপ্তি। যারা যাচে দাসী পদ আপনগরজে । , রাধা বাস হরি হরি নিলে কিবা বুঝে . বোঝা মন বুঝিবারে কিবা প্রয়োজন। . সেও বুঝি জগতের শুিক্রার কারণ ॥ প্রভু কহে শেষ লীলা বড় চমৎকার। . | লীল। কারী যেই তার নিজে বোঝা ভার ॥ শুনি দশরথ পড়ে পদে লোটাইয়ে। কাদিয়ে কাদিয়ে কহে চরণে ধরিয়ে ॥ , সারে বা না সারে রোগ তাতে নাহি দায় । । দয়া করি হরি মোরে রেখ রাঙ্গা পায় ॥... . প্রভু কহে এত'তোর সাধন ভজন । , শুদ্ধাচারী বৈরাষ্ট্রর ব্যাধি কি কারণ ॥ প্রভু কহে দশরথ তোমারে জানাই। শৌচাচার ক’রে তোর হ’ল গুচি বাই ৷ স্বান না করিয়া কিছু খাওনা কখন। স্বান না করিয়া অদ্য করগে ভোজন ॥ • কল্য ভাত রাধিয়া রেখেছে জল দিয়৷ ৷ কাচা বলি দিয়া সেই ভাত খাও গিয়া ॥ শুনি অন্তঃপুরে যায় লক্ষ্মীর নিকটে । মা ! মা ! বলিয়া সাধু ডাকে কর পুটে । সাধুর মুখের ঐকান্তিক ডাক শুনি " দশরথে দেখা দিল জগৎ জননী ॥ দশরথ বলে মা দেহি প্রসাদী ভাত । খেতে আঞ্জা দিয়াছেন প্রভু জগন্নাথ । সাধু ভক্তগণ সব যায় উড়িষ্যায়। সে আনন্দ বাজারে প্রসাদ মেগে খায় ॥ [ x 8 )

, i. i

| - | : f ; i i | অথ দশরথ সঙ্গে ঠাকুরের ভাবলাপ। - ঠাকুর বৃস্থিল গিয়া চটক তলায় । . ! - সাধু কহে আর বার দেহ মা প্রসাদ ॥ করি চূড়ামণি কহে হরিনাম সার স্বান করে পানিকোঁড় দৈত্ত কি বৈরাগী , ' আত্মা শুদ্ধ না হ’লে কি যায় তারে কল্য রাধিয়াছ ভাত তাতে দিলে জল । . . . . সেই মাত লক্ষ্মী তুমি এই সে উৎকল ॥ আনন্দ বাজার এই মেগেছি প্রসাদ। " পদ্ম হস্তে দেহ খেয়ে পুরাইব সাধ । তব হস্ত রাধা অন্ন জগন্নাথ ভোগ। - . দেহ অন্ন খাইয়া সারিব ভব রোগ ॥ , so বহির্দেশে থাকিয়া বলেছে জগন্নাথ। - দশরথে দেহে কঁচা লঙ্ক! পাঞ্ছা ভাত ॥ জগন্মাতা দিল অন্ন আর কঁচা লঙ্কা। দশরথ বলে মোর গেল মৃত্যু শঙ্কা ॥ কিছার ত্রাহিক.জর ভবরোগ গেল । অন্নপাত্র ধরি সাধু মস্তকে রাখিল. । বহু দি অরুচি না পারে,কিছু খেতে। ৮ অদ্য এত রুচি নাহি পারে ধৈর্য্য হতে ॥৪ বড়ই বেড়েছে রুচি বড়ই সুস্বাদ . . ভিড় দিয়৷ ডাক ছেড়ে কহে দশরথ । কাহা লাবড়া ব্যঞ্জন কাহা জগন্নাথ ॥. মহা প্রভু বলে দশরথ এবে আয়। পাইবি লাবড় অন্ন মধ্যtছু সময় ॥: ; কিনা কি এ ওঢ়ার্কাদি না পালি ভাবিয়ে, আর দেখি ক্ষণ কাল বঞ্চুিতোরে লীয়েীঃ উপজিল প্রেমভক্তি সেরে গেল জর ; • { পয়ার । , দশরথ গিয়া শীঘ্ৰ প্ৰণমিল পায়ু। : ঠাকুর জিজ্ঞাসা করে পরেছ কৌপিন । কৌপিনের মহিমা, না জানি এতদিন ॥ " তিন বেলা স্বান ক’রে কে হয় বৈরাগী। , বিবেক বৈরাগ্য তাকি বাহ শোঁচে হয়। বনে বনে থাকিলে কি কৃষ্ণ পাওয়া যায়৷ স্বান রল কারে শুধু উপরেতে ধোয়। দশরথ বন্ধুে এতদিন কি করেছি। ইতি তত্ত্ব না জানিয়া ডুবিয়ে মরে