পাতা:শ্রীশ্রীহরি লীলামৃত.djvu/১৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\, . . মধ্য খণ্ড। জেষ্ঠ ঐউদয় বালা মেঙ্গে জয়চাঁদ। স্ত্রীরামকুমার হরানন্দ ব্ৰজনাথ ॥ " কাদিয়া পড়িল এসে ঠাকুরের পায়। কিহবে কিহ’বে প্রভু নাহিক উপায়। এককাঠ। ধান্য চিড়া দধি দুই খান । মাত্ৰ পাচ সের চিনি গেল জাতিমান ॥ মহাপ্রভু বলে তোর চিড়া দধি আন । দেখিব কেমনে আজ যায় জাতি মান ॥ চিড়া দধি চিনি আন আমি দেখিসব। " ইহা দিয়া করিব চিড়ায় মহোৎসব ॥ ঠাকুরের সম্মুখেতে চিড়। এনে দিল। এ। كمسم দধি চিনি চিড়া প্ৰভু সকল দেখ্রিলপ প্রভু বলে চিড় লও সভার মধ্যেতে । এক মুষ্টি করি গিয়ু দেও সব পাতে । প্রভু আজ্ঞামতে Ri་གསླུ་ ཨཱ་ཨཱ་༔ | -অৰ্দ্ধ চিড়া ফুরাইল সব পাতে দিতে ॥ " চিনি পাঁচ সের সব পাতে পাতে দিলা । সব পাতে দধি দিল এক এক মালা ॥ - সব পাতে-সব দিল আজ্ঞা অনুসারে । জ্ঞান হয় ত্রিভুবনে ফুরাইতে নারে ॥ সব ভক্তে সেবা করে অতি কুতুহলে । প্রেমানদে ভীর দিয়া হরি হরি বলে। . চিড়া দধি যখমেতে লইল মাখিয়া । দশগুণ বৃদ্ধি হ’য়ে উঠিল ফুলিয়া ॥ যার পাতে দিতে যায় সেই করে যান । । চিনি দধি চিড়া খেয়ে ফুরা’তে পারেন। ॥ অলৌকিক ক্রিয়াতে বিস্মি ত সৰ্ব্বজনে। খায় আর হরি হরি বলেছে বদনে ॥ অশ্রু জলে সকলের বক্ষঃ ভেসে যায়। উৰ্দ্ধ বাহু করি কেহ হরি ধ্বনি দেয় ॥ কেহ বলে হেনমতে কতু নাহি খুই। কেহ বলে হেন ভোজ কভু হয় নাই ॥ চিড়া মাত্র যোল সের তার অৰ্দ্ধ আছে। দ্বৈগুণ্য ভোজনে দেহ অবশ হয়েছে। এমন মুস্বাদ আর কভু থাই নাই। মধুর হইতে সুমধুর স্বাদ পাই ॥ কেহ বলে ওরে ভাই শুনি তাই শাস্ত্রে । একহাড়ি দধি ছিল জটিলের হস্তে ॥ সেই দধি কোটী কোটী ব্রাহ্মণের খায়। দেবের দুল্লভ দধি স্বাছ অতিশয় ॥ \. ،-مسدسحم '~ ~ ব্রাহ্মণের খায় দধি সুধীর সমান । এত দধি দুইখান সেত একখান ॥ কোটী ব্রাহ্মণের খায় যাহার দয়ায় । সেই প্রভু মাচকাদি হ’লেন উদয় ॥ চিড়াতে অক্ষয় দৃষ্টি সে প্রভু করিল। এই সে কারণে চিড় অক্ষয় হইল ॥ কেহ বলে ওরে ভাই শুনেছি ভারতে। যুধিষ্ঠিরের রাজস্বয় যজ্ঞের কালেতে ॥ .রাজা দুৰ্য্যোধন ধন ভাণ্ডারেতে ছিল। শক্ৰত করিয়া ধন বিলাইয়। দিল । তথাপি সে ধনাগার পরিপূর্ণ ধনে। সেই দয়াময় হরি বসিয়া সাক্ষাতে। চিড়া দধি অফুরাণ তাহার গুণেতে ॥ র্যার এ আশ্চৰ্য্য লীল। তার গুণ গাও ॥ ঐউদয় বালা চারি ভাই সঙ্গে করি। লোটী’য়ে পড়িল ঠাকুরের পদ ধরি ॥ >কেঁদে বলে ওহে প্রভু ব্ৰহ্ম সনাতন । পঞ্চ পণ্ডিবেকে রক্ষা করিলে যেমন ॥ ষাইট সহস্র শিষ্য ল’য়ে মুনিরর। সন্ধ্যাহিক করিতে গেলেন সরোবর। পঞ্চ ভাই কৃষ্ণ ঠাই জানাইল দৈন্ত । কৃষ্ণা ঠাই কৃঞ্চ গিয়া খাইল শাকান্ন ॥ . তৃপ্তম্বী বলিয়া জল খেল নারায়ণ। তব তৃপ্তে জগস্তৃপ্ত ত্রিলোকের জন ॥ অদ্য তাত করলে তাত ওহে ভগবান। : রক্ষা কৈলে ওহে প্রভু বালাদের মান ॥ প্রভু বলে সেই আমি ভাব যদি তাই। সেই আমি যদি তোরা সেই পঞ্চ ভাই ॥ এই পাঁচ ভাই তোর দ্বাপর লীলায়। শেষে ভবানন্দ পুত্র আমি নদীয়ায় ॥ যুগে যুগে ভক্ত তোরা হইলি আমার। এবে তোরা পঞ্চপুত্র শঙ্কর বার্লার ॥ অন্ন পাক করুহ তণ্ডুল এক মণ ॥ শাক তরকারী দিয়া করহ ব্যঞ্জন । তাহাতে স্বচ্ছন্দে হইবে পরিবেশন ॥ আশ্চৰ্য্য মানিয়া সব প্রভু ভক্তগণ । আনন্দে করেছে সবে নাম সংকীৰ্ত্তন ॥ پئي-سصټيټ سفنديه، ب ধল ফুৱাইতে সারে ধীর দয়া গুণে ॥ " কেহ বলে ওরে ভাই আর কিবা চাও। : ১২৭

  • _f .

আর কথা দিয়া কিব৷ আছে প্রয়োজন। .