পাতা:শ্রীশ্রীহরি লীলামৃত.djvu/১৭৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S - - ᎼᏔ%Ꮬ দুই তিন জনের হয়েছে জরিমান । নদীকূলে মরা দাহ করিবারে মান । জরিমানা তুচ্ছ কথা বড়ই আটক। সাক্ষী বিনা হয় তার ছমাস ফাটক ॥ " তারক বলেন আমি পড়িয়া এসেছি। খেয়া ঘাটে বিজ্ঞাপন লেখা দেখিয়াছি ॥ মর জলে দিলে দুই মাস জেল লেখা । জরিমানা ছাড়া পঞ্চায়াত নেয় টাকা । তাতে নাহি ভয় হয় হউক ফাটক । এ কার্য্য হইলে মম জীবন স্বার্থক । খুন কি ডাকাতি পরদারী হিংস। চুরি । তাতে জেল হ’লে কলঙ্কের ভয় করি ॥ গোস্বামীকে জলে দিয়া যাইব ফাটকে । , স্বৰ্গ সুখ অনুভব করি সে আটকে । , দিব যদি এতে দিতে হয় জরিমান । অক্লেশে করিব সহ পোলীশ যাতন ॥ বলিল সাধনা দেবী ইহা যদি কর । প্রভাতে লাগিবে টাকা কি আছে যোগাড় ॥ তারক কহিল যদি না থাকে যোগাড়। ঘর বেচে দিব নয় খাটিব চাকর ॥ - নগদ চল্লিশ আছে আর কিবা ভাব । যদি আরো কিছু লাগে নৌকা বেচে দিব ॥ তাহা শুনি সাধন কহিছে ভাল ভাল । শীঘ্র তবে গোস্বামীকে ঘাটে ল’য়ে চল ॥ তারক করিল কোলে পদ পড়ে ঝুলে । সাধনা শ্ৰীপদ ধরি তুলে নিল কোলে ৷ গোস্বামীকে ঘাটে এনে নৌকা পরে রেখে। ঘৃত মেখে সলিতার অগ্নি দিল মুখে ॥ বৈশাখী পূর্ণিমা উনত্রিসে শনিবার। গোস্বামীকে ল’য়ে গেল গঙ্গার ভিতর ॥ হেনকালে পূর্ণচন্দ্র গগণে উদয়। নিশীতে দেখায় যেন দীপ্তকার ময় ॥ গোধূলি উত্তীর্ণ রাত্রি দণ্ডেক সময়। দশদণ্ড উপরেতে শশাঙ্ক উদয় ॥ চন্দ্রমায় নীলাকাশ চিত্র বিচিত্রিত। শ্বেত লাল সবুজ হরিদ্র। নীল পীত । তার অধোভাগে হ’ল মেঘ গোলাকার । নব গঙ্গা মধ্যে হ’ল ঘোর অন্ধকার ॥ তার চতুর্দিকে জ্যোৎস্ব আলো ময়। মধ্যে অন্ধকার কিছু লক্ষ্য নাহি হয় ॥ [ २९ } তারকের কোলে গোস্বামীর পূত দেহ । পাছনায় বৈটা বায় গোপাল উৎসাহ । গোস্বামীর সিদ্ধ দেহ ছাড়িলেন জলে । বুড় বুড় শব্দ তাতে তুফান উঠিলে । তার মধ্যে পাক হ’ল পাগলে লইয়া । সেই পাকে গোস্বামীকে দিলেন ডারিয়া ॥ জল হাতে লয়ে দোহে দিল করতালী । হরি বলে মস্তক উপরে হাত তুলি । এড়েন্দার হাটুরিয়া নৌকা দুই খান। লোক দুই নৌকায় নব্বই পরিমাণ ॥ হরিধ্বনি শুনিয়া তাহারা বলে হরি। জলে স্থলে সবে বলে হরি হরি হরি ॥ মেঘ গেল চন্দ্রমণ্ডলে শোভা প্রকাশে । দণ্ড অন্ধকার থাকি পূৰ্ব্ব শোভা হাসে । এ দিকে শ্মশানে আছে কাষ্ঠের পাজাল । • সাধন কহিছে র’ল একটা জঞ্জাল । শ্মশানে থাকিলে কাষ্ঠ ভাল না দেখায়। কাষ্ঠ জ্বালাইয়া শীঘ্র এস দ্বজনীয় ॥ তারক গোপাল দোহে নৌকা বেয়ে গেল। কুল দিয়া গ্রন্থ আর সাধনা চলিল ॥ কণ্ঠেতে আগুন দিয়া বলে হরি হরি । দুজন পুরুষ আর দুইজন নারী ॥ দুই কূলে দেখা যায় লোক সারি সারি। জলে স্থলে সকলে বলেছে হরি হরি ॥ হেন মতে চারিজন আসিলেন ঘরে । মহোৎসব করিরেন কহে গোপাণেরে ॥ গোস্বামীর হুকা যষ্ঠ জয়পুর ছিল । রজনীপ্রভাতে ওঢ়ার্কাদি পঠাইল ॥ সদ্য সদ্য মহোৎসব করিতে বাসনা। গোপালেকে কহিলেন মনের কামনা। দুইটি পূজারী আর ট’লে। ছয় জন। ভেক ধারী দ্বাবিংশতি বৈষ্ণব মুজন ॥ জয়পুর কৃষ্ণপুর নারায়ণদিয়া । কুদসীর নমঃশূদ্র স্বজাতি লইয়া ॥ গোস্বামীর স্বৰ্গার্থে করেন মহোৎসব। হরি বোল বলিয়া ভোজন হ’ল সব ৷ যত লোক পরিমাণ আয়োজন ছিল। অভ্যাগত লোক তার দ্বিগুণ হইল ॥ দুইশত লোক পরিমাণ আয়োজন। লোকের সমষ্টি হ’ল চারি শত জন ॥