পাতা:শ্রীশ্রীহরি লীলামৃত.djvu/২১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


* | &>e শ্ৰীশ্ৰীহরিলীলামৃত। রামধন আসিলেন ঠাকুর নিকট । ভরত বলেন প্রভু না করিও হট । তোমারে সকলে মানে না জানে ত! কেট । পাপ ভয় নাহি করে এই আঁধা বেটী ॥ দেবে মানে দৈত্য মানে গন্ধৰ্ব্বের মানে । ইন্দ্র চন্দ্র নত হয় তব শ্রীচরণে ॥ তোমার চরণ সেবি থাকি তব দ্বারে । তাহাতে আমাদিগকে যমে ভয় করে ॥ ঠাকুর বলেন মোর অই বড় ভয় । পতিত পাবন নামে কলঙ্ক রটয় ॥ রাজজী বলেন হে দয়াল অবতার। আন দেখি সে আঁধারে করিব উদ্ধার ॥ ঠাকুরের আদেশে আসিল রামধন । প্রভু কহে রাজজীর ধরগে চরণ ॥ রামধন যাইতেছে পদ ধরিবারে । রাঙ্গঙ্গী বলেন বেট৷ ছু সনে আমারে । , সুরতীর সঙ্গেতে থাকিবি ছয় মাস। " এক মাস স্বরতীর সঙ্গে খাবি ঘাস ॥ ছয় মাস মুরতীর গোময় খাইবি। রাত্রি ভরি সুধামাখা হরিনাম ল’বি । ঠাকুর বলেন গেল কঠিন হইয়। দয়া করি দণ্ড কিছু দেহ কমাইয়া ॥ রাজজী বলেন তবে হোকৃ আধাআধি । এক বেলা গোময় সকালে খাওয়া বিধি ॥ এই ভাবে মিয়াদে রহিল রামধন । বকুনা গাভীর সঙ্গে করিত শয়ন ॥ গোঠে গিয়া বকুনার সঙ্গে খেত ঘাস । তোলাক গোময় প্রাতে খায় তিন মাস ॥ রামধন রাজজীর মিয়াদ পালিল । হরিচাদ পদভাবি তারক রচিল । পঞ্চম তরঙ্গ । বন্দন । জয় জয় হরিচাদ জয় কৃষ্ণদাস । জয় শ্রীবৈষ্ণবদাস জয় গৌরিদাস ॥ জয় শ্রীস্বরূপদাস পঞ্চ সহোদয়। পতিতপাবন হেতু হৈল অবতার ॥ জয় জয় গুরুচাদ জয় হীরামন । জয় শ্ৰীগোলোকচন্দ্র জয় শ্রীলোচন ॥ জয় জয় দশরথ জয় মৃত্যুঞ্জয়। জয় জয় মহানন্দ প্রেমানন্দ ময় ॥ জয় নাটু জয় ব্রজ জয় বিশ্বনাথ । নিজ দাস করি সবে কর আত্মসাৎ ৷ ভক্ত আনন্দ সরকারের উপাখ্যান । পয়ার । পরগণে খড়রিয়া দুর্গাপুর গ্রাম। ভকত আনন্দ নামে অতি গুণধাম ॥ রামায়ণ গালে যেন দ্বিতীয় বান্সিকি । পরম বৈঞ্চল তত্ত্বজ্ঞানী সদা সুখী ॥ নমঃ শূদ্র কুলুজাত খ্যাতি সরকার । প্রামাণিক মণ্ডল গাইন আখ্যা আর ॥ কেহ কহে কীৰ্ত্তনীয়া কেহ অধিকারী। সৰ্ব্বগুণী সৰ্ব্বকার্য্যে সৰ্ব্ব অধিকারী ॥ কবিগানে বঙ্গ দেশে যশ চরাচর । রচক গায়ক যেন পিক কণ্ঠস্বর ॥ Tতস্ত জ্যৈষ্ঠ পুত্র হরিবর সরকার। রূপার ম্যাডেলে খ্যাতি কবি গুণাকর ॥ দ্বিতীয় ম্যাডেলে কবি রত্ন যশাখ্যান । কণক মাডেলে কবি-রঞ্জন আখ্যান ॥ অপর ম্যাডেলে খ্যাতি কবি চুড়ামণি । তারকের শিষ্য পুত্র ভক্ত শিরোমণি ॥ তস্ত ভ্রাতু পুত্ৰ মনোহর সরকার। কবি চুড়ামণি রৌপ্য ম্যাডেল যাহার। সোণার ম্যাডেলে কবি-চুড়ামণি খ্যাতি। উপস্থিত বক্তা যেন দ্বিতীয় ভারতী ॥