পাতা:শ্রীশ্রীহরি লীলামৃত.djvu/৩২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


n তৃতীয় তরঙ্গ । বন্দন | জয় জয় হরিচাদ জয় কৃষ্ণ দাস । জয় ঐবৈষ্ণব দাস জয় গৌরীবাস । জয় ঐ স্বরুপ দাস পঞ্চ সহোৱর । পতিতপাবন হেতু হৈল অবতার ॥ জয় জয় গুরুর্চাদ জয় হীরামন । জয় ঐগোলোক চন্দ্র জয় ঐলোচন ॥ জয় জয় দশরথ জর মৃত্মঞ্জয় । জয় জয় মহানন্দ প্রেমানন্দ ময় ৷ ভয় নাটু জয় ব্রজ জয় বিশ্বনাথ । দাস করি তারকেরে কর আত্মসাৎ ৷ যশোমন্ত ঠাকুরের বৈষ্ণব সেবা ও বৈঞ্চব দাসের পুনৰ্জ্জীবন ॥ পয়ার । - তন্ত পরে জনমিল ঐবৈঞ্চব বাস। বৈষ্ণব দ্বাসের পরে জন্মে গৌরিদাস ॥ সবার কনিষ্ঠ হ’ল শ্রীস্বরূপ দাস । জগং পবিত্র কৈল হইয়া প্রকাশ ॥ ব্রেতাযুগে প্রকাশ হইল চারি অংশে ॥ এবে এসে প্রকাশ হইল পঞ্চ অংশে ॥ যশোমন্ত সদা দেন বৈঞ্চ ভোজন । একদিন শুন এক আশ্চর্ষ্য ঘটন ॥ একাদশী দিনে সব বৈঞ্চব আসিল । কুষ্ণ প্রেমানন্দে হরি বাসর করিল ॥ নাম সংকীৰ্ত্তনে মত্ত বৈষ্ণবের দল । সঙ্গে সঙ্গে যশোমন্ত বলে হরিবেtল ॥ বয়স বৈষ্ণব দাস চতুর্থ বৎসর । একাদশী দিনে গায় আছে কিছুক্ষর । পারণা দিবসে হরি বাসর প্রভাতে । পুকুরের ঘাটে গেল হাটিতে হাটিতে ॥ পুকুরের জলে পড়ি, মরিল বালক । এদিকে বৈষ্ণবগণ প্রেমেতে পুলক ৷ দেবী অন্নপূর্ণ দেখি কাদিয়া উঠিল। যশোমন্ত এসে মুখ চাপিয়া ধরিল ॥ কান্না শুনি বৈষ্ণবের মুখ ভঙ্গ হ’বে। n হবে বৈঞ্চব সেবা সব বৃথা যাবে, | মরেছে বালক যদি এখানে থাকুক l অগ্রে সব বৈষ্ণবের পারণা হউক ॥ মরা পুত্র যশোমন্ত গৃহে রাখে সেরে । বৈষ্ণবের সঙ্গে গিয়া হরিনাম করে। নাম সংকীৰ্ত্তনে মত্ত বৈঞ্চবের দল । সঙ্গে সঙ্গে যশোমন্ত বলে হরিবে{ল ॥ নাম সংকীৰ্ত্তন হ’ল পারণ হইল । সবে ভোগ দরশন করিতে আসিল ॥ মৃত পুত্র শিরে করি নাচিছে সুধীর। অন্নপূর্ণ দেবী তবে কাদিয়া অস্থির ॥ যশোমন্ত বলে তুমি কাদ কেন মিছে । " বৈষ্ণব সেবার কালে বালক মরে’ছে ॥ - ধন্য রত্নগৰ্ত্ত তুমি তোমার উদরে । এ হেন বালক জন্মে আমাদের ঘরে ॥ আমার ঔরুষ ধন্য তাতে জানা গেল । বৈঞ্চব সেবার কালে বালক মরিল ॥ হেন ভাগ্য কণর হয় জনম লইয়া । বেষ্ণব সেবার মরে কীৰ্ত্তন শুনিয়া ॥ বৈষ্ণব হইয়া বরং বাচে পঞ্চদিন । বুথ সহস্ৰেক কল্প হরিভক্তি হীন ॥ সকল বৈঞ্চব সেবা হইল স্বচ্ছন্দ । মৃত পুত্র তথা আনি বাড়িল আনন্দ ॥ মৃতপুত্র শিরে নাচে পুলক শরীর । বৈষ্ণবেরা বলে কি হইল বৈরাগীর ॥ একসাধু বলে শুন যত সাধুগণ | কি কহিব বৈরাগীর মরিল নন্দন ॥ সবে বলে এ বালক মরিল কথন। তিনি কন তোমাদের কীৰ্ত্তন যখন ॥ জলেতে পড়িয়া পুত্র মরেছে তখন । এই সেই মরা পুত্র মস্তকে ধারণ ॥ ডাক দিয়া যশোমন্তে বৈরাগীরা কয় । মৃত ছেলে কি কারণে রাবিলে মাথায় ॥ বৈষ্ণবের কথাগুনি ধশোমন্ত বলে । মরেছে বালক যম সাধুসেবা কালে ॥ সাধুসেবা হরিনাম শুনে শিশু মরে । পুত্রনয় সাধু বলে রাখিয়াছি শিরে ॥ মরেছে বালক তাতে নাহিক বিষাদ । মম ভয় বৈষ্ণবের সেবা হয় বাদ ॥