পাতা:শ্রীশ্রীহরি লীলামৃত.djvu/৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


م حي تخ" \" ফ দা এক কোণ হ’তে, আদি খণ্ড । গিয়া বৃন্দাবনবাসে, ভ্রমণ চৌরাশী ক্রোশে, বেল ভাণ্ডি তমালের বন । বনু ভ্ৰমি একে একে, গন্ধর জি সেফালিকে, - তাল তরু দেখে হৈল মন । বসি তাল তরুমূলে, ভেসেছে নয়ন জলে, হরি বলে কঁদে উচ্চৈঃস্বরে । আমি শক্তি কৃষ্ণঃঙ্গিণী, ভাগবত শাস্ত্র মুনি, লেখ তুমি যম বক্ষ: পৰে ॥ দেখে পরাশরপুত্র, পড়িতেছে তালপত্র, তালপত্রে কহে মুনিবরে। বাহ শ্ৰীকৃষ্ণেৱ ঠাই, বলগে বলেছে রাই, শিরে শিখিপাখা দিতে মোরে ॥ ব্য{স অতি ব্যস্ত হ'য়ে, শুiমকুণ্ড তীরে গিয়ে, ・なー করেছেন কৃষ্ণ আরাধন। যুগল মিলন হয়ে, ব্যাসের সম্মুখে গিয়ে, রাধা কৃষ্ণ দিল দরশন ॥ বলেছেন শ্রীরাধিকে, যা লিখিবে মর্ম বুকে, - অল্প কলমেতে তাকি হয় । শুনিয়ু। রাধীর বাণী, রাধানাথ রসপনি, শিখিপাখা দিলেন তাহায় ॥ শিখিপুচ্ছ অংশ করি, ব্যাসেরে দিলেন হরি, হাসিয়া বলেন রাধানাথ । যাহ। অনন্ত গোচরে, " জিহবা সে দিবে তোমারে, - তাহাতে না কর অস্ত্রাঘাত । উদয় ক্ষীরোদকূলে, তপ করে হরি বলে, হরি ছিল অনন্ত শয়নে। এক জিহবা হৈল তাতে, এনে দিল ব্যাসমুনি স্থানে ॥ " বাগকে ছলিতে হরি, নাভী হ’তে পদতরী, বাহির করিল যে প্রকার । তেমতি অনন্ত ফণী জিহব। কণ। এক কণা, প্রকাশিল ক্ষীরোদ ঈশ্বর ॥ কলম কালি সহিত, সুচিকণ মনোগীত, মিশ্রিত করিল। শিখিপুচ্ছে। বাসুদেব নন্দমুত, -ঘন সৌদামিনীবৎ, অঙ্গে অঙ্গ মিশ্রিতায় যৈছে ॥ তেতি মিশ্রিত হ’ল কলম অনিয়া দি ল. গণেশের কমল করেতে। ਸੇ ਕੌਸ਼ ਸੋ মন্তাধার শ্বেত সতী, | গণপতি লাগিল লিখিতে। W \ \ - * , \ দশরথ হীরামন, ব্যাসের মুখ নিঃস্থ ত, লিখিত ভারত ভাগবত । আমি অতি অভাজন, সাধন ভজনহীন, বিদ্যাহীন না জানি সংস্কৃত ॥ . ত্রেতাযুগে সেতু বন্ধে, ভলুক বানরবুন্দে, বড় বৃক্ষ আনে বড় বীরে । বড় বড় যে পৰ্ব্বত, বানরেরা আনে কত, হকুমান লোমে বন্ধি করে । রামকার্য্য করিবারে, ব্যস্ত ভলুক বানরে, কাষ্ঠ বিড়ালের হৈল মন । পড়িয়া সমুদ্রনীরে, . গড়াগড়ি দিয়া তীরে, সেতুবন্ধ উপরে গমন ॥ . মনে মনে বিবেচনা, শ্ৰী পদে পাবে বেদন, বালি দিলে খাদ পূর্ণ হয়। পস্থা হয় সুকোমল, যতেক কাষ্ঠ বিড়াল, কাৰ্য্য করে সাধ্য অতুষায় ॥ সেইমত লিখি পুথি, হরিচাদ লীলাগীতি, রামকাৰ্য্য মার্জারের স্তায় ! আমি অজ্ঞ নহে যোগ্য, মার্জার হতে অযোগ্য, হরিলীলা মহাযজ্ঞ প্রায় । সজ্জনের দয়াগুণ, হরিচাদলীলা গুণ, প্রকাশিয়া সে গুণ গাওয়ায় । যদ্যপি লেখনী ধরি, বলি এ বিনয় করি, শ্রোতাগণ মহাজন পায় ॥ " শ্রোতাগণ হংসবৎ, . দোষ ছাড়ি গুণ যত, দুগ্ধবৎ করুন গ্রহণ । হরিলীলামৃত কথা, তেমতি করি মমতা, কর্ণপথে পি ও সৰ্ব্বজন । হরিলীল শ্রবণেতে, ভবসিন্ধু পারে যেতে, পাতকীর নাহি আর ভয় । ঘুচিবে শমন শঙ্কা, হরিনামে যার ডঙ্কা, ধর পাড়ি ভাস ঐ নায় ॥ মহানন্দ শ্ৰীলোচন,

  • . . یہمہ یام مح۔

গণেশের নিজ হস্ত, ; |