পাতা:শ্রীশ্রীহরি লীলামৃত.djvu/৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


- sーヘー*ヘヘヘヘヘ -------ാ~~. - তাহাতে যে কাৰ্য্য করে হেন জ্ঞান হয় ।

  • .

. - * দশদিনের কৰ্ম্ম করে মুহূৰ্ত্ত সময় ॥ বিশ্বনাথ বাড়ী কভু নাটুদের বাড়ী। কোন দিন কাৰ্য্য প্রভু করে নিজবাড়ী ॥ অধিকাংশ কাজ করে বিশেদের বাড়ী। অল্প অল্প কাজ করে নাটুদের বাড়ী ॥ মধ্যমাংশ কাজ প্রভু করে নিজালয়। হয় করে নয় করে হরিগুণ গায় ॥ কোন দিন বসি প্রভু ঘুড়ী উড়াইত। নিৰ্ম্মিয়া মানুষ ঘুড়ি উড়াইয়া দিত। প্রভু বলে ওরে বিশে দেখ তোর চেয়ে । এই ভাবে গুণ ধরি দিয়াছি উড়া'য়ে"॥ ব্ৰজনাথ বিশে আর নাটুয়া পাগল । তাহ দেখি আনন্দে বলিত হরিবোল ৷ একদিন তিন জন প্রেমানন্দভরে । পতিত ভূমিতে বসে বাটীর উত্তরে - ঠাকুরের নিজের পালের শ্রেষ্ঠ গরু । ব্যাধি হয়ে হইয়াছে মরিবার মুরু ॥ ক্রমেই বাড়িল ব্যাধি গরু লালাইয়া । নাশারদ্ধে শ্লেষ্ম উঠে গিয়াছে পড়িয় ॥ নোয়া কৰ্ত্তা সেজে কৰ্ত্ত গরুর নিকটে । ” গরু লয়ে পড়েছেন বিষম সঙ্কটে ॥ বড় কর্তা ছোট কৰ্ত্ত কহে উভয়েরে ॥ কেন বসিয়াছ মরা গরু কোলে করে ॥ পেট ফুলে উঠিয়াছে পা হয়েছে টান। দীতে দাত লেগে গেছে উত্তার নয়ন ॥ বঁচিবে না ঐ গরু প্রায় মরে গেছে । উঠে এস, থাক কেন বলদের কাছে - এত শুনি উঠে এল নিরানন্দ চিত । হেন কালে কয় প্রভু এসে উপস্থিত । বসিয়াছে তিন প্রভু দিব। অবশেষ। বড় কৰ্ত্ত কৃষ্ণদাস রাগে করে দ্বেষ ॥ তিন জন ঠাকুরালী করিয়া বেড়াও । কি গুণেতে বসে বসে এত ভাত খাও ৷ ঠাকুর কোলা'য়ে এত ভাত খেয়ে ফের W গোগৃহে মরেছে গরু রক্ষা গিয়া কর । বেড়াইয়ে খেয়ে খেয়ে করিলি পয়মাল। । এই গরু বাচিলে বুঝিব ঠাকুরাল ॥ বিশারে বাঁচালী বলে ওরে হরিদাস। ই গরু বাচাইয়া খাওয়া দেখি ঘাস ॥ আদি খণ্ড । 8७ , হুঙ্কার করিয়া ব্রজ করি হরিধ্বনি । বড় সাধু ব্রজ তুই পাগল কোলাস।

  • হরির সঙ্গেতে তুই অনেক বেড়া’স । . . s

-- এই গরু আ’জ যদি না পা’র বঁাচাতে । # তাহ’লে তোদেরে আর নাহি দিব খেতে ॥ નર્દૂ এত শুনি ব্রজ চাহে ঠাকুরের ভিতে । ঠাকুর ব্রজকে ব’লে দিলেন ইঙ্গিতে ॥ যারে ব্ৰজ আমি তোরে দেই অনুমতি । χι ওঠ বলি বলদেরে মার গিয়া লাথি । ޛު বলদেরে লাথি গিয়া মারিল অমনি ॥ ওঠ ওঠ ওরে গরু র’লি কেন গুয়ে । A. . . ; অমনি উঠিয়। গরু গেল দৌড়াইয়ে ॥ . যে পতিত জমিতে ঠাকুর বসে ছিল । সে জমিতে গিয়া ঘাস খাইতে লাগিল ॥ বড় কর্তা বলে ওরে ব্রজ হরিদাস । : # . অপরাধী হইয়াছি তোমাদের পাশ ॥ " আজ হ’তে চিনিলাম তোমা সব করে। এত বলি বড় কৰ্ত্ত অনুনয় করে । রচিল তারকচন্দ্র মহানন্দ ভাষোণ-ব:

  • م

বড় কৰ্ত্ত সুখ নীরে মহানন্দে ভাসে ॥- ' : ; - ._ م. - -- ! লঘু •l " . . . i বড় কওঁ, কহে বাৰ্ত্ত, শুন হরিদাস ।" তব খেলা, সব লীলা, , জগতে প্রকাশ ৷ * এত দিনে, নাহি চিনে, কত যে বলেছি। } ব্ৰজনাথে, বিশ্বনাথে, চিনেছি চিনেছি ॥ . } গেল চিন্তে, তোম। চিন্তে, আর চিন্তা নাই। ; মনোভ্রান্তে, তোমা চিন্তে, পারিনা রে ভাই ॥ ; ধন্ত মাতা, ধন্য পিতা, ধন্য তুমি ভাই । তোমা হেন, ভাই যেন, জন্মে জন্মে পাই ॥ i ধন্য বংশ, অবতংশ, তুমি য়ে আসিয়ে। : t আমি ধন্ত, জগন্মান্ত, তোমা,ভাই পেয়ে। i তুমি আদি, গুণনিধি, পালক পালিকা। ; তুমি স্কুল, বৃক্ষ মূল, মোরা পত্রশাখা। ভক্ত সঙ্গে, মনোরঙ্গে, ব'সে থাক ঘরে। দ্বারে দ্বারে, ভিক্ষা করে, খাওয়াব তোমারে। , আর তিন, ভাই দীন, তারা শাখা পত্র। .. " তব গুণে, জগজ্জনে, হইবে পবিত্র । , f * - /