পাতা:শ্রীশ্রী রাধামোহন প্রভুর চরিত্র - গিরীশ চন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf/৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

রাধামোহন চরিত্র । రిషి মহারাজ নন্দকুমার রাধামোহন প্রভুকে প্রচুর অর্থ প্রদান করিয়াছেন, এই কথা ক্রমে ক্রমে সৰ্ব্বত্র প্রচারিত হইলে তস্করগণ তাহ অপহরণ করিবার মন্ত্ৰণ করিতে লাগিল, কিন্তু তৎকালে মালিহাটী গ্রামে অনেক বলবান ও সাহসী লোক ছিল বলিয় তাহারা প্রকাগু ভাবে প্রয়োজন সিদ্ধি বিষয়ে শঙ্কা করিতে লাগিল। রাধামোহন প্ৰভু অকাতরে অতিথি সেবা করিতন, যখন যত অতিথি উপস্থিত হউক না কেন, তিনি তাহাদিগকে তাহাদিগের প্রার্থনানুরূপ ভোজন করাইতেন । এই কথা শুনিয়া দুৰ্ব্বত্ত তস্করগণ একদিন সয়ংকালৈ অতিথি বেশে তাহাদিগের অস্ত্র সন্ত্র বৃহৎ বৃহৎ ঝুলিতে রাখিয়া প্রভুর বাটতে উপস্থিত হইল। প্ৰভু অতিথি দেখিয় যথোচিত সমাদর করিলেন এবং প্রীত হইয় তাহাদিগের থাকিবার জন্ত একটা বৃহৎ গৃহ নির্দেশ করিয়া দিলেন। কালিন্দী দাস ও পরাণ দাস উভয়ে প্রভুর আজ্ঞ ক্ৰমে ক্ষণকাল মধ্যে অন্ন ব্যঞ্জন প্রস্তুত করিয়া অতিথি দিগকে ভোজন করাইতে আরম্ভ করিলেন, তাহারা উদর পূর্ণ করিয়া আহার করিল। অনস্তর মুখ প্রক্ষালনার্থ তাহাদিগকে পুষ্করিণীর ঘাটে যাইতে আদেশ করা হইল। তাহারা যেমন গাত্রে খান করিবে অমনি সকলেরই চক্ষু অন্ধ হইল, আর উঠিতে পারিল না। সকলেই স্ব স্ব স্থানে বসিয়া রহিল।