পাতা:ষোল আনি (জলধর সেন).djvu/১১৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষোল-তমালি পারেন। আমি যজন-ব্যবসায়ী ব্রাহ্মণ ; আপনাদের দুই সরিকের পৌরোহিত্য আমরা পুরুষানুক্রমে করিয়া আসিতেছি। এখন অকস্মাৎ তাহারই একটা সরিকের কার্য্য ত্যাগ করিতে হইলে ব্যাপারটা সম্বন্ধে বিশেষ অনুসন্ধান লওয়া প্রয়োজন । বিনা অনুসন্ধানে কেবল একপক্ষের কথা শুনিয়া কোন সিদ্ধান্ত করা কি যুক্তিসঙ্গত হইবে ? আমি বলি, আমি ত ও-বাড়ীরও পুরোহিত ; আমি যাইয়া বড় বাবুকে এবং বড় গিন্নীকে সমস্ত কথা নিবেদন করি ; র্তাদের কি কৰ্ত্তব্য ও মন্তব্য, তাহাও শুনি এবং এ সম্বন্ধে আমার যা অভিমত, তাহাও তাহাদিগকে বলি। তাহার পর সমস্ত জানিয়া-শুনিয়া যাহা কৰ্ত্তব্য বিবেচিত হইবে, তাহাই করা যাইবে । এত তাড়াতাড়ি করিবার ত কোন প্রয়োজন দেখা যাইতেছে না।” মনোহর বাবু বলিলেন “আপনার ইচ্ছা হয়, আপনি ও-বাড়ীতে গিয়ে সমস্ত জানতে পারেন এবং তাহার পর আপনার কৰ্ত্তব্য স্থির করতে পারেন। কিন্তু, এ কথা আমি পূৰ্ব্বেই বলে রাখছি যে, আপনি যদি ভ্রান্তি-বশতঃ তাদের পক্ষ অবলম্বন করেন, তাহ হইলে আপুনার পুরুষানুক্রমে এ বংশের পুরোহিত হইলেও আপনাকে ত্যাগ করতে আমি বাধ্য হব। আমি যা স্থির করেছি, তা আর নড়চড় হবে না, এ কথা আমি বলেই রাখছি।” এই বৈঠকে আর একটী ব্রাহ্মণ উপস্থিত ছিলেন। তিনি ঐ-এক-রকমের মানুষ । সংসারে তাহার কেহই নাই। কিঞ্চিৎ ব্রহ্মোত্তর আছে। তাহাতে যাহা আয় হয়, তাহাই তাহার সম্বল। So 8