পাতা:ষোল আনি (জলধর সেন).djvu/১৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ঘে লৈ তমানি আর বলা গেলো না। আর শুনতে পেলাম না। কাক বাবু, যদি অভিসম্পাৎ করতে হয়, তাই একবার বল। আমি মাথা পেতে নিচ্ছি।” মোকদ্দমার এমন কি সংবাদ, তাহা তখন প#i * ৪ কেহ শোনে নাই। রমাসুন্দরী একটু ধৈর্য্য ধারণ ক" বললেন “রাজেন্দ্র, মোকদ্দমার কি সংবাদ তুমি ছোট কৰ্ত্তকে দিয়েছিলে ?” রাজেন্দ্র তখন অতি সংক্ষেপে মোকদমর কথা নিবেদন করিল। তখন সকলেই বুঝিতে পারল যে, কি "নক ভয়ে কাতর হইয়। মনোহর বাবুর হৃদপিণ্ডের ক্রিয় বন্ধ ল। রমাসুন্দরী একটা দীর্ঘনিঃশ্বাস ফেলি,সু! বণিনে, "বাণী সিধু, তুমি ত ছোট কৰ্ত্তার বিরুদ্ধে কিছুই কর নাই । শুন’ ত অবস্থা ! তবে আর কাতর হচ্চি কেন ? তোমাকে অভিসম্পাৎ ন করেন নাই । তোমার কি অনিষ্ট তিনি করতে গিয়েছিলেন, মনে করে কাতর হ’য়ে তোমাকে তিনি ডেকেছিলেন । অধীর চেয়ে না বাবা ! এখনকার কাজ যা করবার, তাই কপ ” পুরোহিত মহাশয় এই সংবাদ পাইয়াই আসিয়াসিলেন ; তিনি বলিলেন “হরিহর উপস্থিত নেচ ; এখন যাক কিছু ব্য, তাঙ্গ সিদ্ধেশ্বর বাবুকেই করতে চ মচ । বড় বাবু, এথন করার সময় নয় ; সে সময় পরে অনেক পাবে। এখন তুমিষ্ট . টি কর্ভার পুত্রের কার্য্য কর।” সিদ্ধেশ্বর বললেন “জীবিতকালে ত আমি পুত্রের কাগ্য কিছুই করি নি ; তাই বুঝি আমার এই শাস্তি ” ン ○3