পাতা:ষোল আনি (জলধর সেন).djvu/১৪৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষোল তমালি ! হরিহর বাবু ত আর কয়েক মাস পরেই সাবালক হুইবেন । এই অল্প দিনের জন্য আর এষ্টেট ওয়ার্ডের হাতে দিবার কোন প্রয়োজন মনে হইতেছে না । আমি এখনই কমিসনর সাহেবকে তার করিতেছি । যাহাতে আপনিই হরিহরের বিষয়ের তত্ত্বাবধানের ভার পান, আমি সেই প্রস্তাবই করিতেছি । আপনার আজই বাড়ী যাইবেন না ; যাহাতে কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই কমিসনর সাহেবের আদেশ তারযোগে আসে, আমি তাঙ্গার ব্যবস্থা করিতেছি। সিদ্ধেশ্বর বাবু, কমিসনর সাহেবও আপনাকে জানেন ; আপনার উপর তাতার বিশেষ শ্রদ্ধা আছে, এ কথা একদিন কথাপ্রসঙ্গে আমাকে বলিয়াছিলেন। তারের জবাব আদিবামাত্র আমি উকিল বাবুকে সংবাদ পাঠাইয়া দিব ।” সিদ্ধেশ্বর বাবু বলিলেন “সংবাদ পাওয়া মাত্র খামর মহাশয়ের নিকট আসিয়া সমস্ত বিষয়ে উপদেশ গ্রহণ করিয়া যাইব ।” মাজিষ্ট্রেট সাহেব হাসিয়া বলিলেন “সিদ্ধেশ্বর বাবু, কেমন করিয়া জমিদাবী ম্যানেজ করিতে হয়, সে উপদেশ আমার নিকট অপেক্ষ আপনার মায়ের কাছেই ভাল পাইবেন ।” মাণ্ডি ষ্ট্রট সাহেব বাহ। প্রস্তাব করিয়া!ছলেন, তাহাই মঞ্জুর হইল। কামসনর সাহেব উপরের মঞ্জুরার অপেক্ষ রাখিয়া আদেশ পাঠাইলেন যে, বাবু সিদ্ধেশ্বর চাটার্য্যি হরিহর বাবুর সাবালক না হওয়া পর্য্যন্ত বিষয় সম্পত্তি রক্ষণাবেক্ষন করিবেন। সদর হইতে যেন একজন ডেপুটী অবিলম্বে দেবীপুরে যাইয়া সাক্ষীদিগের সম্মুখে সাত-আনির বাড়ীর দ্বার খোলেন এবং সমস্ত বিষঃ ծՎ)ց