পাতা:ষোল আনি (জলধর সেন).djvu/১৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নোল-তমানি 0 তখন পুনরায় পড়া আরম্ভ করিও । আপাততঃ কমিসনর সাহেবের আদেশ অনুসারেই কাজ করা কৰ্ত্তব্য। বিষয়ের তত্ত্বাবধান সম্বন্ধে আমিও যেমন পণ্ডিত, তোমাকে ও তেমনই শিক্ষা দিব । কিন্তু তোমাকে উদাসীন হইলে চলিবে না ; মায়ের নিকট হইতে সমস্ত শিখিয়া লইতে আরম্ভ কর। আমি নামমাত্র অভিভাবক রহিলাম । যাহা কিছু কাজকৰ্ম্ম, সমস্তই মায়ের আদেশ অনুসারেই চলিবে । তুমি বাড়ীতে থাকিয় কাজকৰ্ম্ম দেখ, আর আমার যতখানি বিষ্ঠা আছে, তাহাই তোমাকে দান করিব।” হরিহর বলিল “ইউনিভারসিটির দুই একটা ছাপ নেবার ইচ্ছ। ছিল ; তা হয় ত আর হবে না। তা না হোলো, তুমি যা জান দাদা, তাই যদি আমাকে বেশ করে শিখিয়ে দিতে পার, তা হলে আর আমার আক্ষেপ থাকবে না।” এই সময় ভগবান আর একটা গোলও মিটাইয়া দিলেন। মনোহর বাবুর শ্রাদ্ধ উপলক্ষে সকলকেই পরিশ্রম করিতে হঠয়াছিল ; সিদ্ধেশ্বরের স্ত্রী ও সেই অসুস্থ শরীরেই কাজ কৰ্ম্মে যোগদান করিয়াছিলেন ; রমাসুন্দরী ও মানদার নিষেধ কিছুতেই মানেন নাই । কয়েকদিনের অনিয়মে তাহার শরীর একেবারে ভাঙ্গিয়৷ পড়িল । তিনি মৃতপ্রায় হইয়া পড়িলেন। জেলা হইতে সিবিল সার্জন ও অপর একজন বহুদৰ্শী বাঙ্গালী চিকিৎসককে আনা হইল। র্তাহারা বলিলেন, রোগিণীর আর বঁচিবার আশা নাই ; এ সময় ঔষধ-পত্ৰ দিয়া তাহাকে কষ্ট দেওয়ায় কোনই লাভ নাই। তাহারা বাড়ীর সকলকে সৰ্ব্বদা সতর্কভাবে > 3. o