পাতা:ষোল আনি (জলধর সেন).djvu/১৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষোল-তলানি আমাকে পাও নি বাপ হরিহর ! অথচ ঐ কথাটা যে আমার মনে জাগছে, তাই বা অস্বীকার করি কি ব’লে। আমি তোমাকে জিজ্ঞাসা করতে চাই সিধু, তুমি নিজের সম্বন্ধে কি স্থির করেছ ? আমার মুখের দিকে চেয়ে না, হরিহরের কথা ভেবে না ; তোমার জীবনের শাস্তির জন্য তুমি কোন পথ অবলম্বন করা স্থির করেছ, তাই আমাকে মন খুলে বল। তাই শুনে, তবে আমি সমস্ত ব্যবস্থা করতে পারি।” সিদ্ধেশ্বর বলিলেন “মা, এখনই কি তোমার ব্যবস্থার সময় এসে পড়েছে? যাক না কিছুদিন ; তার পর যা হয় করা যাবে।” রমামুন্দরী বলিলেন “কাহারও শরীরের কথা বল যায় না । এই ত, একেবারে সুস্থ মানুষ তোমার কাকা-বাৰু, এক নিমিষের ভরও সইল না।” সিদ্ধেশ্বর বলিলেন “অবশ্ব আমি যে মনে কিছু স্থির করি নাই, তা নয় ; এবং আমি যা সঙ্কল্প করেছি, তুমি তাতে নিশ্চয়ই সন্মত হবে—কারণ তুমি যে আমার মা। তোমার হৃদয়েব সমস্ত ভাব আমি বুঝতে পারি। তবুও সময় নিচ্ছিলাম কেন, তা রান । এই O হরিহরের এখন কালাশৌচ, তারপর এখনও সে আইন হিসাবে নাবালক। কালাশৌচ শেষ হয়ে যাক, ও সাবালক হয়ে বিষয় হাতে করুক, তার পর আমি যা কৰ্ত্তব্য স্থির করে রেখেছি, সেই অনুসারে কাজ করব। তারই জন্য বিলম্ব করছি, নতুবা আমি যে মনে কিছুই এখন পর্যন্ত ভাবি নাই, তা নয়।” হরিহর বলিল “তা যদি ভেবেচিন্তে সবই ঠিক করে থাক, তার “g Ᏹ 8 ☾