পাতা:ষোল আনি (জলধর সেন).djvu/১৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষোল-তমালি তোকে আদেয় কি আমার কিছু আছে ? তুই কি আমার তেমন ছেলে ! তোকে আমার কাছে ভিক্ষা করতে হবে কেন ? তোর যা প্রার্থনা, তা আমার কাছ থেকে তুই জোর করে, আবদার করে আদায় করে নিবি।” সিদ্ধেশ্বর বলিলেন “তা জানি মা ! তবু৪ সব দিক বেঁধে নিচ্ছি। তার পর, ভাই হরিহর, আমি যা বলল, তা েই তুমি রাজী হবে ?” হরিহর বলিল “একটা বাদে সব-তাতেই রাজী । তুমি যা বলবে, তার সব শুল্ব, মুধু একটা কথা শুল্ব না । সে কথাট আগেই বলে রাথি। তুমি যে বললে, তোমার বিষ সম্পৰি আমাকে লেখাপড়া করে দেবে, তা আমি শুন । না ; তা ছা উী আর যা বলবে, আমি তাই করব, তোমাকে বলছি ।” সিদ্ধেশ্বর বলিলেন “বেশ, আমার বিষয় তুই নিসমে, আমি তা তোকে দিতেও যাচ্ছিনে ; আমার খুড়তুতে ভাইকে আমি বিষয় দান করব, এও কি একটা কথা রে ” হরিহর বলিল “বেশ, তাই না হলেই হোলে ।” সিদ্ধেশ্বর তখন বলিলেন “মা, আমি তোমার কাছে স্বহার মেয়েটকে ভিক্ষ চাচ্ছি। আর ভাই হরিহর, আমার এই সুচারকে তোমাকে বিবাহ করতে হবে। দেবীপুরের জমিদারের যে গোরাচাদ মুখুয্যের নিরপরাধা বিধবাকে সমাজের দিকে না চেয়ে, স্বধু আশ্রয় দিয়েছে, তাই নয় ; গোরাচাঁদ মুখুয্যের কন্যাকে দেবীপুরের জমিদার গৃহলক্ষ্মী করেছে, এইটে আমি দেখাতে চাই । እ:8 ፃ