পাতা:ষোল আনি (জলধর সেন).djvu/১৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষোল-তমালি সিদ্ধেশ্বর বলিলেন “আমি কিন্তু এ ব্যবস্তাটা জানতাম না মা !” হরিহর বলিল “আর কিছু তোমার বলবার নেই দাদা " সিদ্ধেশ্বর বলিলেন “এখনও আমার কথা শেষ হয় নাই । মুহারের বিবাহ দিয়া আমি এই নয়-আনির জমিদারী যৌতুক দেব । তারপর মা ও মুহারের মাকে নিয়ে আমি কাশীবাসী হব। হরিহর আমাদের মাসিক যৎকিঞ্চিৎ খরচ পাঠিয়ে দেবে ।” হরিহর লাফাইয়া উঠিয়া বলিল “এ কক্‌খনো হবে না ; আমি ত বলেছি দাদা, তোমার জমিদারী আমি নে{ে না ; আর সব কথা শুনবো। তুমি বিবাহ করতে বলঙ্গ, আমি তাতে সম্মত, কিন্তু বিষয় নেব না।” O সিদ্ধেশ্বর বলিলেন “আমি ত বলেছি, আমার ভাঠকে আমি বিষয় দেব না। আমি ত তোকে কিছুই দিচ্ছিনে ; যে মুহারকে বিবাহ করবে, আমি তাকেই আমার জমিদারী যৌতুক দেব। তুষ্ট বিবাহ করতে অস্বীকার করে প্রতিজ্ঞা ভঙ্গ করিস্, তুই বিষয় পাবি নে। আমি মুহারের ভাবী স্বামীকেই আমার সম্পত্তি দান করছি, আমার কাকা-বাবুর ছেলে অৰ্ব্বাচন হরিহর চট্টোপাধ্যায়কে দিচ্ছিনে ; কেমন, আমার কথা বুঝ’ল । যা, আর কথা বলিস না ; আমি যা বলব, তাই তোকে মেনে নিতে হবে। তোকে যে জিজ্ঞাস করেছি, এই তোর সৌভাগ্য, বুঝলি !" রমাসুন্দরী বসিয়া ছিলেন ; উঠিয়া বলিলেন “তোরা একটু 8 సె