পাতা:ষোল আনি (জলধর সেন).djvu/৭৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষোল-আণনি ছেন। আমার কিন্তু ভাই, এ সব মোটেই ভাল লাগে না। তুমি বেশ আছে ; কোন গোল নেই, পড়াশুনা করছ। আমার যে তারও যো নেই। এদিকের যে কয়টা পাশ, তা হেয়ে গেল ; কাজেই বাড়ী এসে বসতে হলো। এখন দিন রাত মুধু জমিদারী আর মামলা-মোকদম । আমার ভয়ানক কষ্ট হয়েছে। এই এখনই কাকাবাবুর কাছে গেলে, তিনি রায় ফরসালা দলিলদস্তাবেজ সব বার করে ফেলবেন, আর আমি মধুসূদনের নাম ডাকৃতে থাকব ।” হরিহর হাসিয়া বলিল, “সেই জন্যই ত দাদা, আমি যাকেতাকে বলি, আমার দাদার জমিদারের ঘরে জন্মগ্রহণ করা ঠিক হয় নাই। আমি সত্যি বলছি দাদা, তোমার ঠিক মানাতো গরীব গৃহস্থের ঘরে। তুমি একটা পাড়াগায়ের স্কুলে এই ষাট সত্তর টাকার হেড মাষ্টারী করতে—তোমার পক্ষে সেইটে ঠিক হতো। তা নয়, একেবারে কিনা দেবীপুরের নয়.আনির হর্তাকর্ত-বিধাতা!” ; সিদ্ধেশ্বর বলিলেন “কি করব ভাই, ছোট একটা ভাই থাকত, তার উপর সব ভার দিয়ে আমি নিশ্চিন্ত হয়ে লেখাপড়া নিয়েই থাকৃতে পারতাম। মা বুড়ো হয়েছেন ; তিনি আর কতদিন এই সব জঞ্জাল পোয়াবেন ; তবুও আমার রকম দেখে তিনি এখনও বেশী কিছু চাপ আমার উপর দেম না। কিন্তু আমারওত ভাব উচিত। কি বল ভাই ?” o হরিহর বলিল “দেখ দাদা, আমি তোমায় ঠিক বলছি, তুমি Noby