পাতা:সংকলন (১৯২৬) - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8 。 সংকলন করিয়া লইয়াছে। ভারতবর্ষ পলিন্দ শবর ব্যাধ প্রভূতিদের নিকট হইতেও } বীভৎস সামগ্রী গ্রহণ করিয়া তাহার মধ্যে নিজের ভাব বিস্তার করিয়াছে, তাহার মধ্য দিয়াও নিজের আধ্যাত্মিকতাকে অভিব্যক্ত করিয়াছে। ভারতবর্ষ কিছুই ত্যাগ করে নাই এবং গ্রহণ করিয়া সকলই আপনার করিয়াছে। এই ঐক্যবিস্তার ও শৃঙ্খলাপথাপন কেবল সমাজব্যবস্থায় নহে, ধমনীতিতেও দেখি; গীতায় জ্ঞান প্রেম ও কমের মধ্যে যে সম্পণে সামঞ্জস্যস্থাপনের চেষ্টা দেখি তাহা বিশেষরপে ভারতবর্ষের। পথিবীর সভ্যসমাজের মধ্যে ভারতবর্ষ নানাকে এক করিবার আদশ'-রপে বিরাজ করিতেছে, তাহার ইতিহাস হইতে ইহাই প্রতিপন্ন হইবে। এককে বিশেবর মধ্যে ও নিজের আত্মার মধ্যে অনুভব করিয়া সেই এককে বিচিত্রের মধ্যে পথাপন করা, জ্ঞানের বারা আবিস্কার করা, কমের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত করা, প্রেমের বারা উপলব্ধি করা এবং জীবনের বারা প্রচার করা—নানা বাধা-বিপত্তি-দগতি-সংগতির মধ্যে ভারতবর্ষ ইহাই করিতেছে। ইতিহাসের ভিতর দিয়া যখন ভারতের সেই চিরন্তন ভাবটি অনুভব করিব তখন আমাদের বর্তমানের সহিত অতীতের বিচ্ছেদ বিল ত হইবে। SE > ○O>