পাতা:সংবাদপত্রে সেকালের কথা প্রথম খণ্ড.djvu/২০৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সমাজ ృగిసి ( ২৬ এপ্রিল ১৮২৮ । ১৫ বৈশাখ ১২৩৫ ) দ্বিতীয় সঞ্চয় ভাণ্ডার –আমরা আহলাদপূৰ্ব্বক প্রকাশ করিতেছি যে প্রথম সঞ্চয় ভাণ্ডার স্বজনবিধি নিয়মিত কালপর্য্যন্ত জাগ্রৎ থাকিয়া কালবশে নিদ্রিত হইয়াছে এক্ষণে তদধ্যক্ষের দ্বিতীয় সঞ্চয় ভাণ্ডার নামরূপে পুনরুখান করিয়াছেন। তাহার অনুষ্ঠানপত্র অধ্যক্ষেরদিগের অকুমতানুসারে চন্দ্রিকায় প্রথম পত্রে প্রকাশ করিলাম - । সঞ্চয়ভাণ্ডারের গুণ অধিক লেখা লিপিবাহুল্যাশঙ্কায় ক্ষান্ত হইলাম কিন্তু তৎকৰ্ম্মাধ্যক্ষদিগকে ধন্যবাদ দিতে নিরস্ত নহি কেন ন! দশ জন ঐক্য হইয়া কৰ্ম্ম নিৰ্ব্বাহ করা যাহা অম্মদেশীয়েরদিগের স্থদুরপরাহত হয় তাহা ইহার একবার প্রচার করণানন্তর তাবতের মনোরঞ্জন করত পুনৰ্ব্বার প্রবর্ত হইয়াছেন। ( বাঙ্গল সমাচার পত্ৰহইতে নীত । ) { ২৭ ফেব্রুয়ারি ১৮১৯ । ১৭ ফাল্গুন ১২২৫ ) উড়ে বেহার। --হিসাব করিয়া নিশ্চয় জানা গিয়াছে যে উড়ে বেহারার প্রতিবৎসর কলিকাতাহইতে তিন লক্ষ টাকা আপন দেশে লইয়া যায় ও তাহার কিঞ্চিৎও ফিরিয়া আনে না । ( ২১ আগষ্ট ১৮১৯ । ৬ ভাদ্র ১২২৬ ) কাশীতে নিমক্সার –কাশী প্রদেশে অনেক লবণ উৎপন্ন হয় যেহেতুক সে দেশে লবণযুক্ত মৃত্তিক অাছে সে মৃত্তিক ও কুপহইতে যে জল উঠান যায় সে জল অন্য মৃত্তিকার উপরে ছিটান যায় তাহাতে সে মৃত্তিকাও লবণযুক্ত হয় ও তাহার উপরে এক অঙ্গুলিপরিমিত লবণ জমে সে দেশের অনেক জমিদার যে ভূমিতে শস্য না জন্মে বুঝেন সে ভূমিতে এই রূপে লবণ উৎপন্ন করান ও তাহাতে লাভ হয়। হিন্দুস্থানের লবণের লাভ লোকসান কোম্পানি বাহাদূরের অধীন। অতএব এই রূপে লবণ উৎপত্তি বিষয়ে ইংল্লণ্ডীয় এক সাহেব সমাচার পত্রে ছাপাইয়া এই বিষয়ের কি কৰ্ত্তব্য জানিতে চাহিয়াছেন যেহেতুক ইহাতে কোম্পানির নোকসান হয় । ( ২০ এপ্রিল ১৮২২ । ৯ বৈশাখ ১২২৯ ) প্রেরিত পত্র। দর্পণ প্রকাশকেষু —চৈত্র সপ্তবিংশতি দিবসীয় ষষ্ঠ সমাচার চন্ত্রিকার আলোকে আলোকিত হইল তাহাতে লবণ দুর্মুল্যত কারণ বিজ্ঞাপন প্রার্থনা আছে অতএব অন্মদাদির বুদ্ধানুসারে লবণ দুর্মুল্যতা বিষয়ে যাদৃশ অনুমান হইল তাহ লিখি । নিজযশঃপ্রখ্যাপনেচ্ছু কোন ব্যক্তি অন্য২ লোকের নানাবিধ কীৰ্ত্তি শ্রবণ দ্বারা স্বয়ং খিদ্যমান হইয়া বিবেচনা করিলেন যে এমত এক কৰ্ম্ম কি আছে যে তাহা করিলে আপামর সাধারণ সকল লোকের অপকার নিম্পন্ন করিয়া সে সকলের নানা কটুক্তিভাজন অর্থাৎ নানাবিধ গালির স্থান হওয়াতে খ্যাত হইতে পারি। ইহাতে আপনি কিছু স্থির করিতে না পারিয়া আত্মীয় বর্গকে পরামর্শ জিজ্ঞাসা করিলেন। তাহাতে বাবুজীর পুরোহিত কুকৰ্ম্ম পঞ্চানন