পাতা:সংবাদপত্রে সেকালের কথা প্রথম খণ্ড.djvu/২৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


э,оо মংবাদ গুগত্রে মোকালেৰ কথা অtয়ার নিকট তাহার কারণ জিজ্ঞাসা করিয়াছেন । অপর শ্ৰীশ্ৰীযুত বাইলি প্রিসিডেন্ট ইন কোন্সেল সে সভা অস্বীকার করিয়াছেন অতএব আমি এক ইশতেহার দিয়াছি যে সেই দিনে সে সভা টেনহালে বসিবে না । দ্বিতীয়। প্রধান সেক্টারি শ্ৰীযুত লসিংটন সাহেব যখন এতদ্বিষয়ে শ্ৰীশ্ৰীযুতের stল আমার নিকট প্রেরণ করিলেন তখন তিনি আরো এই কহিলেন যে তোমারদের দয়ককের প্রথম প্রকরণে যে২ বিষয়ের ঐ সভাতে বিবেচনা হইত সেই বিষয়ের বিবেচনা করিবার নিমিত্তে যে কোন সভা বসে ইহাতে শ্ৰীযুত কোর্ট আফ ডাইরেক্তসের নিষেধ আছে অতএব শ্ৰীযুত সে নিষেধপ্রযুক্ত সভা করিতে অনুমতি দিতে পারেন না । তৃতীয়। কিন্তু শ্ৰীশ্ৰীযুত আমাকে এই কহিতে অনুমতি দিয়াছেন যে যেরূপ সভা বসিতে ইশতেহার দেওয়া গিয়াছিল সেরূপ সভা বসিবেক না বটে কিন্তু ইষ্টাম্প আইনের বিরুদ্ধে পার্লিমেণ্টে দিবার নিমিত্তে কোন দরখাস্ত অন্ত স্থানে প্রস্তুত করিয়া স্বাক্ষরের কারণ টৌনহালে রাখিতে বাধা নাই । চতুর্থ। ঐক্রযুত আরো আমাকে এই কহিতে আজ্ঞা করিয়াছেন যে তোমারদের দরখাস্তের শেষ তিন প্রকরণের বিষয় বিবেচনা করিবার নিমিত্তে সভার অনুমতি যদি আমার স্বারা ঐশ্ৰযুতের নিকট যাজ্ঞ কর তবে শ্ৰীশ্ৰীযুত সে সভা করিতে অনুমতি দিবেন ইতি । কলিকাতা ১২ মে ১৮২৭ সাল । পূৰ্ব্ব লিখিত পত্রানুসারে টেনহালে ১৭ মে তারিখে যে সভার বিষয়ে ইশতেহার দেওয়া গিয়াছিল সে সভা হইতে পারিবে না অতএব নীচে স্বাক্ষরকারিরা সকলকে জানাইতেছেন যে আগামি বুধবার ২৩ মে তারিখে দিবা দুই প্রহরের সময় একসচেঞ্জ ঘরে এক বৈঠক হইবেক এবং সরিফ সাহেবের প্রতি প্রথম দরখাস্তে যে২ বিষয় লিখিত ছিল তদ্বিষয় সম্পৰ্কীয় যে দরখাস্তের সে সভাতে প্রসঙ্গ হইবেক সে দরখাস্তের বিবেচনা হইবেক । গোপাল দাস মনোহর দাস •••চন্দ্রকুমার ঠাকুর । শিবচন্দ্র দাস । আগুতোষ দে । রাধাকৃষ্ণ মিত্র। ভবানীচরণ বন্দ্যোপাধ্যায় । হরিমোহন ঠাকুর । জান পামর । রামগোপাল মল্লিক। রামরত্ব মল্লিক। বৈষ্ণবদাস মল্লিক। বীর নৃসিংহ মল্লিক। রামচন্দ্র মিত্র।--- - ( ২১ জুলাই ১৮২৭ । ৬ শ্রাবণ ১২৩৪ ) ইষ্টাম্প –গত বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট আদালতে তিন জন জজ সাহেব বসিয়া বিবেচনাপূর্বক নূতন ইষ্টাম্প আইনে রেজিষ্টরি করিয়া আইন জারি করিতে আজ্ঞা দিয়াছেন অতএব অতঃপর ইষ্টাম্প কাগজের মূল্য না দিয়া আর কেহ বাচিতে পরিবেন না। ইহার পূৰ্ব্বে মফসলে লোকেরা আপনারদের পাট্টা কবুলিয়ৎপ্রভৃতির উপর যে ইষ্টাম্পের মুল্য দিত তাহা এক্ষণে কলিকাতার লক্ষপতিরদের উপরেও পড়িবে।